৩ জানুয়ারি ২০১৮


পাথর কোয়ারিতে নিহতের ঘটনায় মামলা, তদন্ত কমিটি

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : জাফলংয়ের মন্দিরেরজুম এলাকায় অবৈধভাবে পাথর তুলতে গিয়ে গর্ত ধসে এক নারীসহ পাঁচ শ্রমিকের মৃত্যুর ঘটনায় গর্ত মালিক আব্দুস সাত্তারকে প্রধান করে ১৬ জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে।

বুধবার সকালে নিহত জহুর আলীর মেয়ে জাকিরুন বেগম বাদী হয়ে গোয়াইনঘাট থানায় মামলাটি দায়ের করেন বলে জানিয়েছেন গোয়াইনঘাট থানার ওসি দেলওয়ার হোসেন।

এ দিকে এ ঘটনা তদন্তে বুধবার তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করেছে জেলা প্রশাসন।

সিলেটের জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার জানান, সিলেটের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) আমিনুর রহমানকে প্রধান করে তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। কমিটির অন্য সদস্যরা হলেন সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মো. আব্দুল্লাহ ও আরডিসি আরিফুর রহমান।

ওসি জানান, পাথর কোয়ারি ধসে হত্যার ঘটনায় মঙ্গলবার রাতে শাহাব উদ্দিন নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ। আরেকটি মামলায় গর্তের মালিক আব্দুস সাত্তার কারাগারে রয়েছেন। তাকে এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হবে।

মঙ্গলবার বিকালে মন্দিরেরজুম এলাকায় গর্ত করে পাথর তুলার সময় গর্তের পাড় ধসে ঘটনাস্থলে মারা যান চার শ্রমিক। আহত অবস্থায় সাদেক মিয়া নামের একজনকে জৈন্তাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে সেখানে তার মৃত্যু হয়। গোপনে তার মরদেহ হবিগঞ্জের বানিয়াচং নিয়ে গেলে রাতে সেখান থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

নিহতরা হলেন, ওসমানী নগরের করণশী গ্রামের মফিজ উল্লাহর ছেলে নুর মিয়া (৫০), হবিগঞ্জের বানিয়াচং থানার জামালপুর গ্রামের মৃত তাজ উল্লাহর ছেলে সাদেক মিয়া (৩৫), একই উপজেলার বানেশ্বর বিশ্বাসের পাড়ার মৃত ইব্রাহিম আলীর ছেলে জহুর আলী (৬৫), জহুর আলীর ছেলে মুজাহিদ মিয়া (২২), মেয়ে সাকিরুন বেগম (২৬)।

(আজকের সিলেট/৩ জানুয়ারি/ডি/কেআর/ঘ.)

শেয়ার করুন