৬ জানুয়ারি ২০১৮


গোয়ালাবাজার আদর্শ মহিলা ডিগ্রি কলেজের আনন্দ র‌্যালী

শেয়ার করুন

ওসমানীনগর প্রতিনিধি : ওসমানীনগরে গোয়ালাবাজার আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজ জাতীয় করণের সরকারি আদেশ হাইকোর্টে বহাল থাকায় আনন্দ মিছিল করেছে কলেজ কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসী। শনিবার সকাল ১১টায় কলেজের শিক্ষক শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর উদ্যোগে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কে আনন্দ র‌্যালী করা হয়।

মহিলা কলেজ প্রাঙ্গন থেকে শুরু করো বিশাল র‌্যালী বাদ্যযন্ত্র সহকারে সিলেট-ঢাকা মহাসড়কের ২কিলোমিটার এলাকা প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালী শেষে শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ এলাকাবাসী একে অপরকে মিষ্টি মুখ করানো হয়।

কলেজ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তব্য রাখেন আলহাজ্ব আবদুল মতিন চৌধুরী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান হারুন মিয়া, ইউপি চেয়ারম্যান আতাউর রহমান মাানিক, পরিবহন মালিক সমিতির নেতা শাহ নুরুর রহমান সানুর, প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মুহিদুর রহমান (লাল), সমাজসেবী পিনাক পানি ভট্টাচার্য্য, আলা মিয়া পীর, আবদুল কুদ্দুছ শেখ, সমাজসেবী হাজী লাল মাহমুদ, আলাউর রহমান আলা, আবদুর রব গেদা মিয়া, আবদুল জলিল জিলু, কলেজ অধ্যক্ষ আবদুল মুকিত আজাদ, প্রধান শিক্ষক আবুল লেইছ, সহকারি প্রধান শিক্ষক সামছুল হক, ইউপি সদস্য জিলু মিয়া, বেলাল আহমদ, আবদুস সামাদ, তছন মিয়া, ব্যবসায়ী নেতা মিফতা রাজা চৌধুরী, আবদুল মুমিন, ফারুক মিয়া ঠিকাদার, নিধির সূত্রধর, রুমেল মিয়া, তাজ উদ্দিন, মনির মিয়া, আবু কয়েছ চৌধুরী, কিবরিয়া মিয়া, দিলদার আলী, রুহেল আহমদ, আমির খান, আনহার আহমদ, রেজন মিয়া, আবদুল মন্নান, নিপ্পন সূত্রধর, হেলাল মিয়া, উজ্জ্বল দেব, সুমন দত্ত, নজরুল মিয়া, রাসেল চৌধুরী রাজু, সুহিন আহমদ, জমির আলী প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ১৫ ডিসেম্বর গোয়ালাবাজার আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজকে জাতীয় করা হয় সরকার। উপজেলার তাজপুর ডিগ্রি কলেজ জাতীয়করণের তালিকা থেকে বাদ পড়ায় ২০১৭ সালের ২৮মে হাইকোর্টে একটি রীট পিটিশন দায়ের করা হয় তাজপুর কলেজ কর্তৃপক্ষ।

রিট পিটিশনের প্রেক্ষিতে হাইকোট ডিভিশন ব্রেঞ্চ গত ৩১ মে গোয়ালাবাজার আদর্শ মহিলা ডিগ্রী কলেজ জাতীয়করণ কার্যক্রম তিন মাসের জন্য স্থগিতাদেশ প্রদান করেন। একই সাথে গোয়ালাবাজার আদর্শ মহিলা ডিগ্রি কলেজের পরিবর্তে কেন তাজপুর ডিগ্রি কলেজকে জাতীয়করণ করা হবেনা এই মর্মে সরকারের প্রতি রুল জারি করেন।
গত ২ জানুয়ারী রীটের শুনানী শেষে ৪ জানুয়ারী গায়ালাবাজার আদর্শ মহিলা ডিগ্রি কলেজকে জাতীয় করণের সরকারি ঘোষণা বহাল রাখার রায় প্রদান করেন আদালত। উচ্চ আদালতের রায় বহাল থাকায় মহিলা কলেজ কর্তৃপক্ষ ও এলাকাবাসী আনন্দ র‌্যালী করেন।

(আজকের সিলেট/৬ জানুয়ারি/ডি/এসসি/ঘ.)

শেয়ার করুন