২১ জানুয়ারি ২০১৮


শিক্ষক সংকটে কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়

শেয়ার করুন

কানাইঘাট প্রতিনিধি : শিক্ষক সংকটের কারণে শত বছরের ঐতিহ্যবাহী সিলেটের কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের সার্বিক শিক্ষা কার্যক্রম মুখ থুবড়ে পড়েছে। ফলে ব্যাহত হচ্ছে শিক্ষার্থীদের পাঠদান। দীর্ঘদিন ধরে স্কুলের ২৭ জন শিক্ষকের মধ্যে বর্তমানে ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকসহ কর্মরত রয়েছেন মাত্র ৮ জন শিক্ষক। সাড়ে ৬শ’ শিক্ষার্থীকে ৭ জন শিক্ষক পাঠদান করতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন। এতে করে শিক্ষার্থীদের সার্বিক পাঠদানে মারাত্মক ব্যাঘাত ঘটছে।

শিক্ষকরা সঠিকভাবে শিক্ষার্থীদের ক্লাস করাতে পারছেন না। ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে ১০ম শ্রেণি পর্যন্ত ১০টি সেকশনে বিজ্ঞান ও মানবিক শাখায় শিক্ষার্থীদের পাঠদানে শিক্ষকস্বল্পতার কারণে বিঘ্ন ঘটছে। কমার্স বিভাগ থাকলেও দীর্ঘ কয়েক বছর ধরে এই বিভাগের কোন শিক্ষক স্কুলে নিয়োগ না-দেওয়ায় কমার্সে লেখাপড়া করতে পারছেন না শিক্ষার্থীরা।

স্কুলের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুষেন রঞ্জন তালুকদার জানিয়েছেন- কানাইঘাট উপজেলার সেরা শিক্ষার্থীরা এ প্রতিষ্ঠানে ভর্তি হওয়ার জন্য প্রতিযোগিতা করে থাকে। মেধাবী শিক্ষার্থীরা এখানে রেখাপড়ার সুযোগ পেলেও দীর্ঘদিন ধরে ২৭ জন শিক্ষকের মধ্যে মাত্র ৮ জন দিয়ে আমরা জোড়াতালি দিয়ে ছাত্রদের পাঠদান কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছি। এতে করে শিক্ষার্থীদের যেভাবে পাঠদান করার কথা সেটি আমরা করতে পারছি না।

তিনি বলেন- শিক্ষক সংকটের পাশাপাশি ৫ জন কর্মচারীর স্থলে বর্তমানে ১ জন, অফিস সহকারী ২ জনের মধ্যে ১ জন রয়েছেন। শিক্ষক সংকট থাকার পরও সাড়ে ৬ শতাধিক শিক্ষার্থীকে ৮ জন শিক্ষক অত্যন্ত কঠোর পরিশ্রম করে পাঠদান করায় এসএসসি ও জেএসসি পরীক্ষায় উপজেলার মধ্যে এ প্রতিষ্ঠানটি ১ম স্থান অধিকার করে থাকে।

সম্প্রতি জেএসসি পরীক্ষায় ১১৫ জন শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে ১৫টি ‘এ’ প্লাসসহ ১১৪ জন শিক্ষার্থী সাফল্যের সাথে উত্তীর্ণ হয়েছেন। স্কুলের অভিভাবক ও সচেতন মহল শিক্ষক সংকট দূর করার জন্য নানাভাবে সরকারের বিভিন্ন দফতরে তদ্বির চালিয়ে আসলেও তার কোন প্রতিকার পাচ্ছেন না। স্থানীয় সংসদ সদস্য বিরোধী দলীয় হুইপ সেলিম উদ্দিন স্কুলের স্বাভাবিক পাঠদান অব্যাহত রাখতে শিক্ষক সল্পতা দূর করার জন্য আশ্বাস দিয়েছিলেন, কিন্তু তারপরও এ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক সংকট দূর হচ্ছে না।

প্রধান শিক্ষক সুষেন রঞ্জন তালকুদার বলেন- আমি স্কুলের প্রশাসনিক কাজসহ সবকিছু করে থাকি। ৭ জন শিক্ষক কী করে এত শিক্ষার্থীর ক্লাস নিবেন এটা সকলকে ভাবতে হবে।

তিনি বলেন- স্কুলের শিক্ষকস্বল্পতা দূর করতে পারলে সিলেটের মধ্যে কানাইঘাট সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় সার্বিক ফলাফলের দিক থেকে একটি সেরা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হবে, যে আশা-আকাক্সক্ষা নিয়ে অভিভাবকরা তাদের সন্তানদের এ স্কুলে পাঠান সেই প্রত্যাশা আমরা পূরণ করতে পারব।

(আজকের সিলেট/২১ জানুয়ারি/ডি/এসটি/ঘ.)

শেয়ার করুন