২৭ জুলাই ২০১৭


শালিসে অপমান, বিষপানে যুবতীর আত্মহত্যা

শেয়ার করুন

মাধবপুর (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি : হবিগঞ্জের মাধবপুরে শালীস বৈঠকে জনসম্মুখে অপমান করায় এক তরূণী বিষপান করে আত্মহত্যা করেছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার সকালে আত্মহত্যার প্ররোচণার অভিযোগে ৫ জনের নাম উল্লেখ করে মামলা করেছেন যুবতীর ভাই জসিম উদ্দিন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের আমির আলীর মেয়ে শরিফা বেগমের সঙ্গে একই গ্রামের আবিদ আলীর ছেলে জুনাইদ মিয়ার দুই বছর আগে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে। সম্প্রতি শরিফা জুনাইদ কে বিয়ের জন্য চাপ দিলে জুনাইদ বিয়ে করতে অস্বীকার করেন। এ নিয়ে গত ২২ জুলাই সুলতানপুর একটি শালীস বৈঠক বসে। বৈঠকে জুনাইদকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ প্রস্তাবে শরিফা রাজি না হলে জুনাইদ ও তার লোকজন তাকে গালিগালাজ করেন। তখন শরীফা বলে জুনাইদ আমাকে বিয়ে না করলে আমি সমাজে মুখ দেখাতে পারবো না। এ কথা বলার পর জুনাইদের পরিবারের লোকজন বলে মুখ দেখাতে না পারলে মরে যা।

এ অপমান সইতে না পেরে ২৪ জুলাই গভীররাতে শরিফা বিষ পান করে ছটফট করতে থাকলে পরিবারের লোকজন তাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। সেখানে চিকিৎসারত অবস্থায় ২৬ জুলাই রাতে শরিফা মারা যায়। এ ঘটনায় শরিফার ভাই জসিম উদ্দিন বাদী হয়ে একই গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে জুনাইদকে প্রধান আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

থানার পরিদর্শক তদন্ত সাজেদুল ইসলাম পলাশ জানান, এ ঘটনায় আত্মহত্যার প্ররোচণায় একটি মামলা হয়েছে।

 

(আজকের সিলেট/২৭ জুলাই/ডি/এসসি/ঘ.)

শেয়ার করুন