আজ বৃহস্পতিবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

বালাগঞ্জে ৪০ গ্রাম প্লাবিত

  • আপডেট টাইম : June 20, 2017 2:37 PM

বালাগঞ্জ প্রতিনিধি : বালাগঞ্জ কুশিয়ারা নদীর পানি আকষ্মিক বৃদ্ধির কারণে নদী পারের প্রায় ৪০টি গ্রাম প্লাবিত হয়েছে। নদীর তীর ঘেষা বালাগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সম্মুখের রাস্তা পানিতে তলিয়ে গেছে। বালাগঞ্জের করচারপাড় এলাকায় কুশিয়ারা ডাইক ভেঙ্গে যাওয়ায় উপজেলা সদর সহ বেশ কিছু এলাকা প্লাবিত। তারমধ্যে উপজেলা কমপ্লেক্স হাসপাতাল রোড ও বালাগঞ্জ বাজারে পানি উঠে গেছে।

সোমবার তাৎক্ষনিকভাবে বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদে ত্রান ও দূর্যোগ কমিটির সভা অনুষ্টিত হয়। উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আবদাল মিয়ার সভাপতিত্বে ও ইউএনও প্রদীপ সিংহের পরিচালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন ভাইস চেয়ারম্যান সৈয়দ আলী আজগর , মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান রেপা বেগম, ইউপি চেয়ারম্যান আনহার মিয়া, আব্দুল মুনিম, হিমাংশু রঞ্জন দাস সহ কমিটির অন্যন্য সদস্যবৃন্দ।

তাৎক্ষনিকভাবে পানিবন্দিদের জন্য ৫টন চাউল বরাদ্ধ করা হয়েছে। পানি বৃদ্ধির কারণে কুশিয়ারার ডাইক করছারপাড় অংশ ভেঙ্গে যাওয়ায়। জনগণ চলাচলের জন্য রাস্তায় বাঁশের সাঁকোর ব্যবস্থা করছে উপজেলা প্রশাসন। নির্মানাধীন বালাগঞ্জ-খসরুপুর সড়ক নতুন করে ডুবে গেছে।

আক্রান্ত হয়েছে রাধাকোনা, করছারপাড়, কালিয়ারগাও, হুসনপুর , বিতুনীয়া, কাজীপুর, সত্যপুর কুশারগ্রাম, রুপিয়া, প্রসন্নপুর,গুড়াপুর, রহমতপুর, বোয়ালজুড়ের মাকড়সী, সিংড়াকোনা , মনোহর পুর , সরমানন্দপুর, সোনাপুর , রুপাপুর. পূর্ব পৈলনপুরের এৗয়া, পৈলনপুর, রসিদপুর, বঙ্গপুর ও হামছাপুর, পশ্চিমগৌরিপুরের তেঘরিয়া, লোহামুড়া, একাচিকন, শ্রীনাথপুর সহ ৪০টি গ্রাম ।

বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মুনিম বলেন, আমার ইউনিয়নে প্রায় ৭ শ পরিবার পানি বন্দি রয়েছে।

বোয়ালজুড় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আনহার মিয়া মিয়া বলেন, প্রাথমিকভাবে খোজ নিয়ে জানা গেছে, আমার ইউনিয়নের প্রায় ৬শটি ঘর পানিতে নিমজ্জিত। তাছাড়া মাকড়সী, সিংড়াকোনা , মনোহর পুর , সরমানন্দপুর, সোনাপুর ও রুপাপুরের গ্রামে বেশী লোক পানি বন্দি রয়েছে।

বালাগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী কর্মকর্তা প্রদীপ সিংহ বলেন, বালাগঞ্জ কুশিয়ারা নদীর পানি বৃদ্ধি ও প্রচুর বৃষ্টির ফলে উপজেলা চত্বর সহ বালাগঞ্জ হাপাতাল সড়ক নবীনগর বালাগঞ্জ বাজার সর্বত্র পানি উঠে পড়েছে। সোমবার তাৎক্ষনিকভাবে দূর্যোগ কমিটির সভা হয়েছে। উপজেলার ৬টি ইউনিয়নে প্রায় ৪০টি গ্রাম ও ১৫শ পরিবার পানিবন্দি রয়েছে।

 

 

(আজকের সিলেট/২০ জুন/ডি/এসটি/ঘ.)

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ