আজ শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

হবিগঞ্জে পর্যটনের নতুন সম্ভাবনা ‘পদ্মবিল’

  • আপডেট টাইম : September 14, 2018 5:55 AM

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : বিস্তৃত চা বাগান, দেশের ২য় বৃহত্তম বন রেমা কালেঙ্গা, সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান, লক্ষ্মী বাওড় জলাবন, কমলারাণীর দিঘীসহ প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের অনেক স্থান রয়েছে হবিগঞ্জে। এর মধ্যে বিনোদন প্রেমীদের জন্য নতুন মাত্র যোগ করেছে পদ্মবিল।

সম্প্রতি জেলার বানিয়াচং উপজেলার পুকড়া ইউনিয়নের মুড়ারআব্দা হাওরে এই পদ্মবিলের সন্ধান মেলে। কয়েক মাসের মধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে চারদিকে ছড়িয়ে পড়েছে এই পদ্মবিলের নাম। তবে পদ্মবিলের সংরক্ষণ এবং জনসচেতনতার অভাবে এই সৌন্দর্য ধরে রাখা যাবে কি না, এ নিয়ে বিনোদন প্রেমীদের মনে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। তবে জেলা প্রশাসন বলছে- এটিকে আর্কষণিয় করে তুলার জন্য বিশেষ উদ্যোগ নেয়া হবে।

ইতোমধ্যে হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবীর মুরাদ, স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান এবং সংস্কৃতি ও পরিবেশকর্মী এবং সাংবাদিকরা বিলটি পরিদর্শন করেছেন। পরিদর্শনকালে জেলা প্রশাসক বিলটিকে সংরক্ষণের ব্যাপারে কাজ করার আশ্বাস দিয়েছেন।

সরেজমিনে দেখা যায়, বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে গোলাপি রং এর পদ্ম দেখলে মন ও জুড়িয়ে যায়। চোখ যত দূর যায় শুধু পদ্ম আর পদ্ম। এমন অপরূপ দৃশ্য যেন ভ্রমণপিপাসুদের হাতছানি দিচ্ছে। এ বিলের সৌন্দর্য ও পদ্ম দেখার জন্য প্রতিদিনই ছেলে-মেয়ে নিয়ে ভিড় করছেন দর্শণার্থীরা। তারা নৌকায় ঘুরে সৌন্দর্য উপভোগ করছেন। স্থানীয়রাও ভ্রমণ পিপাসুদের সার্বিক সহযোগিতা করছেন। বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে পদ্ম দেখলে মনও জুড়িয়ে যায়।

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) হবিগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল বলেন, পদ্মবিলের সন্ধান পাওয়ার কথা জেনে আমি যতটা না আনন্দিত তার চেয়ে বেশি বিরক্ত এই বিলের ফুল ছেঁড়া নিয়ে। এটি অবশ্যই ভালো মানসিকতা নয়। আমাদের মানসিকতার পরিবর্তন করতে হবে।

সরকারি বৃন্দাবন কলেজের উদ্ভিদ বিদ্যা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. সুভাষ চন্দ্র দেব জানান, পদ্মফুল দেখতে যেমন সুন্দর তেমনি এর অনেক গুণাগুন রয়েছে। পদ্মফুলের মধু চোখের অসুখের মহৌষধ। এর স্কন্ধ শ্বেতী ও হৃদ রোগের ওষুধ হিসেব ব্যবহার করা হয়। এই ফুল আমাদের সংরক্ষণ করতে হবে।

কবি ও নাট্যকার অজেয় বিক্রম দাশ শিবু বলেন, আমি ফেসবুকের কল্যাণে জেনেছি হবিগঞ্জ শহরের নিকটবর্তী বালিখালের কাছে একটি জায়গায় পদ্ম ফুলের বিস্তার ঘটেছে। ফেসবুকে পদ্মবিলের সৌন্দর্য্য উপভোগকারীদের দেয়া পোস্ট দেখে আমি আকৃষ্ট হই।

হবিগঞ্জের জেলা প্রশাসক মাহমুদুল কবির মুরাদ বলেন, হবিগঞ্জ জেলা প্রাকৃতিক সৌন্দর্যের জন্য পর্যটন কেন্দ্র হতে পারে। পদ্মবিলের আবিষ্কারের ফলে পর্যটন সম্ভাবনা আরো বৃদ্ধি পাবে। জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে এটি সংরক্ষণের উদ্যোগ নেয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ