আজ বৃহস্পতিবার, ২১শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

শ্রীমঙ্গলে নেই মশা নিধন কার্যক্রম

  • আপডেট টাইম : August 12, 2019 9:48 AM

উপজেলা প্রতিনিধি, শ্রীমঙ্গল

মৌলভীবাজার : দেশজুড়ে ডেঙ্গুর উপদ্রবের ফলে সরকারের নির্দেশে মশক নিধন ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অভিযান পরিচালনা করছে সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদ। কিন্তু ব্যতিক্রম মৌলভীবাজারের পর্যটন শহর শ্রীমঙ্গল পৌরসভা। সরকারের দুই লক্ষাধিক টাকা বরাদ্দ দেওয়ার পরও পৌর এলাকায় এখন পর্যন্ত কোনো মশক নিধন বা পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম চালায়নি পৌরসভা।

জানা গেছে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে সারাদেশে গত ২৫ ও ৩১ জুলাই মশক নিধন সপ্তাহের আয়োজন করেছিল স্থানীয় সরকার বিভাগ। এতে প্রত্যেক সিটি করপোরেশন, পৌরসভা, উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদকে এ কর্মসূচি বাস্তবায়নের নির্দেশ দেওয়া হয়। এছাড়া সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় একইভাবে কর্মসূচি পালন করে দেশুজুড়ে। কিন্তু সেই কর্মসূচি পালন করেনি শ্রীমঙ্গল পৌরসভা। এরপর আরও দশদিন গত হলেও এখন পর্যন্ত কোনো প্রদক্ষেপ নেয়নি পৌর কর্তৃপক্ষ। যার ফলে পৌরবাসীর মধ্যে বাড়ছে ডেঙ্গু আতঙ্ক।

জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, এখন পর্যন্ত শ্রীমঙ্গল উপজেলায় ১৫ জন ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত করা হয়েছে। তাদের মধ্যে স্থানীয়রাও রয়েছে। কিন্তু পৌরসভা ডেঙ্গু প্রতিকার ব্যবস্থা নিচ্ছেনা। যার ফলে স্থানীয় বাসিন্দাদের মধ্যে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

পৌরসভার বাসিন্দাদের অভিযোগ, পৌরসভার নয়টি ওয়ার্ডের মধ্যে প্রত্যেক ওয়ার্ডের রাস্তাঘাটের পাশে ময়লা আবর্জনা রয়েছে। আবাসিক এলাকাগুলোতে নর্দমা ও ড্রেন অপরিচ্ছন্ন। সেসব স্থানে মশার উৎপাত রয়েছে। কিন্তু পৌর কর্তৃপক্ষ কোনো রকমের ব্যবস্থা নিচ্ছেনা। মশক নিধনে জেলার সব পৌরসভায় ব্যবস্থা নেওয়া হলেও শ্রীমঙ্গলে পৌর কর্তৃপক্ষের কোনো সাড়া নেই।

পৌরসভার কলেজ রোড এলাকার বাসিন্দা আনোয়ার হোসেন বলেন, মশার ভয়ে দিন-রাত ঘরের দরজা-জানলা বন্ধ করে রাখতে হচ্ছে। মশা নিধনে পৌরসভা কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছেনা।

পৌরসভাধীন পল হেরিস ইন্টারন্যাশনাল স্কুলের এক শিক্ষার্থীর বাবা জাহিদুর রহমান বলেন, শহরে কোনো মশক নিধন ব্যবস্থা নেই দেখে ডেঙ্গুর ভয়ে আমার মেয়েকে স্কুলে পাঠাইনি গত ১৫ দিন থেকে। কারণ এডিস মশা তৈরির মতো অনেক জায়গা থাকলেও এর কোনো ব্যবস্থা নেয়নি পৌরসভা।

এ ব্যাপারে পৌরসভার মেয়র মহসিন মিয়া মধু বলেন, শ্রীমঙ্গল শহরে কোনো এডিস মশা নেই। আর থেকে থাকলেও মশা নিধন করা সম্ভব নয়। কোনো কর্মসূচি গ্রহনের জন্য আমাদের বলাও হয়নি। বরাদ্দের টাকার বিষয়ে তিনি বলেন, কত টাকা বরাদ্দ হয়েছে তা আমার জানা নেই। আর কর্মসূচি পালনের জন্য এখনো সময় রয়েছে।

শ্রীমঙ্গল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) নজরুল ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমরা পৌরসভাকে নিয়ে আলোচনা করে তাদের কর্মসূচি নিতে বলেছি। আলোচনায় মেয়র উপস্থিত না থাকলেও প্যানেল মেয়র ও কাউন্সিলাররা উপস্থিত ছিলেন। কি-কি কর্মসূচি তারা নিবেন এ সংক্রান্ত সরকারি সিদ্ধান্ত তাদের জানিয়ে দেওয়া হয়েছে।

মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক (ডিসি) নাজিরা শিরিন বলেন, প্রত্যেক পৌরসভাকে মশক নিধন ও পরিচ্ছন্নতা অভিযানের জন্য দুই লক্ষাধিক টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। শ্রীমঙ্গল পৌরসভাকেও সে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। কিন্তু ওই পৌরসভা এলাকায় কোনো কার্যক্রমের খবর পাইনি।

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ