আজ শুক্রবার, ২২শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

পেনসিলভানিয়াতেও ট্রাম্পের মামলা খারিজ

  • আপডেট টাইম : November 22, 2020 10:34 AM

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : নির্বাচনে পরাজিত হলেও তা অস্বীকার করে একের পর এক মামলা করে যাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কিন্তু সেগুলোর বেশিরভাগই হয় আদালত খারিজ করে দিয়েছে অন্যথায় মামলাই নেয়নি। এবার পেনসিলভানিয়াতেও ধরা খেলেন ট্রাম্প। পেনসিলভানিয়ার আদালত ট্রাম্পের মামলা খারিজ করে দিয়েছেন।

ট্রাম্প শিবিরের পক্ষ থেকে এই অঙ্গরাজ্যে ভোটের ফলাফল সার্টিফাই করার ওপর স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়। পেনসিলভানিয়া সুপ্রিম কোর্টের ফেডারেল বিচারক ম্যাথিউ ব্র্যান আবেদনটি গ্রহণের পক্ষে কোনো প্রমাণ পাননি। অবশ্য আদালতের এমন পদক্ষেপেও দমে যায়নি ট্রাম্প শিবির। ট্রাম্পের আইনজীবী রুডি জুলিয়ানি বলেছেন, এমন খারিজ হওয়া তাদের জন্য ভালো হয়েছে।

এর আগে জর্জিয়া ও মিশিগানের স্থানীয় আদালতে ট্রাম্পের মামলা খারিজ হয়। ট্রাম্প শিবির থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। আটলান্টায় স্থানীয় সময় শনিবার দিনভর ট্রাম্প–সমর্থকদের বিক্ষোভ সমাবেশ হয়েছে।

রাজধানী ওয়াশিংটনসহ যুক্তরাষ্ট্রের অন্তত ২০টি নগরীতে বিক্ষোভ সমাবেশে ট্রাম্প–সমর্থকেরা ভোট কারচুপি হয়েছে বলে স্লোগান দেন। শেষ পর্যন্ত লড়াই চালিয়ে যেতে তারা প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পকে আহ্বান জানিয়েছেন। কোথাও কোনো সহিংসতার খবর পাওয়া যায়নি।

ট্রাম্পের আইনজীবীরা জানাচ্ছেন, তাদের কাছে ভোট কারচুপি নিয়ে কয়েক শ’ অ্যাফিডেভিট জমা পড়েছে। এসব অ্যাফিডেভিট নিয়েই তারা যুক্তরাষ্ট্রের সুপ্রিম কোর্টে যাবেন। নির্বাচনের ফলাফল বাতিল চেয়ে কংগ্রেসের হস্তক্ষেপে জয়–পরাজয় নির্ধারণের আইনগত যুক্তি তারা তুলে ধরবেন।

শনিবার অর্থনৈতিক ফোরাম জি–২০ নেতাদের সঙ্গে ভার্চ্যুয়াল সভায় ট্রাম্প অল্প সময়ের জন্য উপস্থিত হন। এই সভায় রাষ্ট্রনেতাদের কাছ থেকে বিদায় নেওয়ার একটা সুযোগ ছিল ট্রাম্পের। তা না করে তিনি সভা সংক্ষিপ্ত করে গলফ খেলতে চলে যান। গতকাল বিকেলে আরেক দফা টুইট করে মিডিয়ার ওপর ক্ষোভ ঝাড়েন ট্রাম্প। টুইটে তিনি বলেছেন, মিডিয়াও ভোটের মতো দুর্নীতিতে নিমজ্জিত!

ট্রাম্প যখন নির্বাচনের ফলাফল নিয়ে এমন আইনি পদক্ষেপ নিতে ব্যস্ত, তখন নবনির্বাচিত প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ও ভাইস প্রেসিডেন্ট কমলা হ্যারিস তাদের প্রশাসনের কাজ গুছিয়ে আনছেন। আর এ কাজে ফেডারেল সরকারের কোনো সহযোগিতা ছাড়াই বাইডেন শিবির থেকে চাঁদা ওঠানো হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে শনিবার সমর্থকদের ই–মেইলে সবাইকে ১০ ডলার করে চাঁদা দিতে অনুরোধ জানানো হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ