আজ বুধবার, ২০শে জানুয়ারি, ২০২১ ইং

হবিগঞ্জে বেড়েছে চুরি-ছিনতাই

  • আপডেট টাইম : January 11, 2021 10:22 AM

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জে শীত ও ঘন কুয়াশার সুযোগে শিল্পাঞ্চল এলাকায় চুরি, ছিনতাই ও ডাকাতির ঘটনা মারাত্মকভাবে বৃদ্ধি পেয়েছে। কাজ শেষে বাড়ি ফেরা নিরীহ শ্রমিকদের সর্বস্ব লুটে নিচ্ছে ছিনতাইকারীর দল। বিষয়টি নিয়ে চরম উদ্বেগ-উৎকন্ঠায় রয়েছেন ওই এলাকার শ্রমিকরা।

শিল্পাঞ্চল রক্ষা ও শ্রমিকদের নিরাপত্তায় ইন্ডাস্ট্রিয়াল পুলিশ ক্যাম্প স্থাপনসহ পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছেন তারা।

ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের শেরপুর থেকে মাধবপুর উপজেলা পর্যন্ত প্রায় ৮০ কিলোমিটার সড়কের দু’পাশের জমিগুলোতে একের পর এক গড়ে উঠেছে শিল্প-কারখানা। যা খুব দ্রুত সময়ে মধ্যেই শিল্প সমৃদ্ধ করছে পুরো হবিগঞ্জকে। এর মধ্যে বিশেষ করে হবিগঞ্জ সদর উপজেলার নূরপুর, শায়েস্তাগঞ্জের অলিপুর, মাধবপুর উপজেলার বাঘাসুরা, নয়াপাড়া, জগদীশপুর, নবীগঞ্জ ও বাহুবল উপজেলার মহাসড়ক সংলগ্ন গ্রামগুলোতেই বেশি গড়ে উঠছে দেশি-বিদেশি কল-খারকানা। এ সুবাধে ওইসব এলাকায় কাজের সুযোগ পেয়েছে হাজারো বেকার যুবক-যুবতি।

ওই এলাকায় গড়ে উঠা শিল্প-কারখানাগুলো হলো- স্কয়ার, প্রাণ, বাদশা, আরএকে স্টার সিরামিকস ও ফরসেলিন, গ্রেটওয়াল-চারু সিরামিকস, বেঙ্গল গ্রুপ, আরএফএল, যমুনা গ্রুপ, রূপায়ণ, এজি সিরামিকস, চায়না সিরামিকসহ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন কোম্পানি রয়েছে।

এদিকে, ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল এলাকায় গড়ে উঠা ওই সব কোম্পানির শ্রমিকদের টার্গেট করে চুরি-ছিনতাই ও ডাকাতির ঘটনা ঘটাচ্ছে বেশ কয়েকটি চক্র। বিশেষ করে সন্ধ্যায় শ্রমিকের আসা যাওয়ার সময় এ রকম অপ্রীতিকর ঘটনা বেশি ঘটছে।

ভুক্তভোগীদের সঙ্গে আলাপ করে জানা যায়, কোম্পানি ছুটির সময়টাকেই মোক্ষম সময় হিসেবে বেছে নিচ্ছে ছিনতাইকারী চক্রটি। আর বর্তমান সময়ে কুয়াশা বেড়ে যাওয়ায় তা আরো বৃদ্ধি পেয়েছে। এর মধ্যে শায়েস্তাগঞ্জের অলিপুর পুরাতন রেলগেট, স্কয়ার গেট, পুরাসুন্দা, সুতাং বাছিরগঞ্জ, নুরপুর, নতুন ব্রিজ এসব পয়েন্টে চুরি ও ছিনতাইয়ের ঘটনা বেশি ঘটছে।

শ্রমিক স্বাধীন চৌধুরী বলেন, আমরা কারখানায় দিন রাত পরিশ্রম করে টাকা উপার্জন করি। কিন্তু ছিনতাইকারীরা অস্ত্রের মুখে মুহূর্তের মধ্যেই তা লুট করে নিয়ে যায়। অনেক শ্রমিকই ছিনতাইয়ের শিকার হয়ে দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। আমাদের (শ্রমিকদের) দাবি, আমাদের আসা যাওয়ার রাস্তায় যেন পুলিশি নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়।

শ্রমিক আল্পনা আক্তার বলেন, ছিনতাইকারীরা শুধু টাকা পয়সা নিয়েই ক্ষান্ত হয় না। অনেক সময় নারী শ্রমিকদের বিভিন্ন যৌন হেনন্তাও করে থাকে তারা। তাই নারী শ্রমিকের নিরাপত্তায় আমাদের ইড্রাস্ট্রিয়াল এলাকায় পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন জরুরি হয়ে পড়েছে।

হবিগঞ্জ ইন্ডাস্ট্রিয়াল পার্কের জেনারেল ম্যানেজার (জিএম) হাসান মো. মঞ্জুরুল হক বলেন, সম্প্রতি আমাদের শ্রমিকরা কাজে আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে চুরি ছিনতাইয়ের শিকার হচ্ছে। তাই আমাদের দাবি জরুরি ভিত্তিতে যেন শিল্প পুলিশ ক্যাম্প স্থাপন করা হয়। তা না হলে শ্রমিকদের নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়বে।

শায়েস্তাগঞ্জ থানার ওসি অজয় চন্দ্র দেব বলেন, শিল্প এলাকায় আমাদের পুলিশি টহল জোরদার করা হয়েছে। এরই মধ্যে বেশ কিছু চিহ্নিত চোরকে গ্রেফতার করে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে। এছাড়া অভিযোগ পাওয়া মাত্রই তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে।

Print Friendly, PDF & Email
  •  
  •  
  •  
  •  

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ