১৬ আগস্ট ২০১৮


রায়নগরে পুলিশ সদস্যের দখলকৃত জায়গার স্থাপনা উচ্ছেদ

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : নগরীর রায়নগরে মহানগর পুলিশ সদস্য কর্তৃক দখলকৃত জায়গার ওপর গড়ে উঠা স্থাপনা ভাঙলেন সিলেট সিটি করপোরেশনের (সিসিক) সদ্য নির্বাচিত মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশের সহযোগিতায় রায়নগরের রাজবাড়ী আবাসিক এলাকায় সরকারী শিশু সদনের উল্টোদিকের এ অবৈধভাবে স্থাপনাটি ভাঙেন তিনি।

অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য হচ্ছেন আবুল খায়ের; তিনি মহানগর পুলিশের সিটি এসবি ব্রাঞ্চে রয়েছেন। প্রথম নির্বাচিত হওয়ার পরে আবুল খায়ের মেয়র আরিফের গানম্যান হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন।

সদ্য নির্বাচিত সিসিক মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী বলেন, আমি যখন নির্বাচনের কাজে ব্যস্ত ছিলাম তখন সে (আবুল খায়ের) আমার নাম ভাঙিয়ে জায়গাটি দখল করে একটি টিনশেড ঘর বানিয়ে এক নারীকে তুলেন এবং এ জায়গায় অবৈধ গ্যাস ও বিদ্যুৎ সংযোগও ব্যবহার করেছে সে।

তবে এসময় সেই পুলিশ সদস্য আবুল খায়েরকে ঘটনাস্থলে দেখা যায়নি। স্থাপনা ভাঙার সময় বিপুল সংখ্যক এলাকাবাসী ও স্থানীয় কাউন্সিলর এবিএম জিল্লুর রহমান উজ্জ্বল ঘটনাস্থলে ছিলেন।

এদিকে নাজমুল হক নামে রায়নগরের স্থানীয় এক বাসিন্দা দাবি করেছেন, জায়গাটির মালিক তিনি। তার বাসার ঠিক পূর্বপাশের ভূমির মালিক সদ্য নির্বাচিত সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী। আরিফুল হক চৌধুরী তাঁর নিজস্ব জায়গাতে দালান নির্মাণ করছেন। নির্মাণ শ্রমিকদের অস্থায়ী বসবাসের জন্য আরিফ অনুরোধ করে আমার জমিতে অস্থায়ী শেড নির্মাণ করেছিলেন। এখন তিনি এটি ভেঙে দিচ্ছেন।

এর আগে একদল পুলিশ সদস্য ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আরিফুল হক চৌধুরীকে স্থাপনা ভাঙার কাজ বন্ধ রাখতে অনুরোধ করেন। তখন আরিফুল হক চৌধুরী তাদের বলেন- জায়গার মালিককে অনুরোধ করে এখানে শ্রমিকদের জন্য অস্থায়ী শেড করেছিলাম। আমি নির্বাচনী কাজে ব্যস্ত থাকায় আবুল খায়ের আমার নাম ভাঙিয়ে এই জায়গাটি দখলের চেষ্টা করেছেন। আমি খবর পেয়ে এখানে এসেছি।

পরে বেলা পৌনে ১ টার দিকে সিলেট সিটি করপোরেশনের একটি বুলডোজার দিয়ে আধাপাকা স্থাপনাটি ভেঙে ফেলা হয়।

(আজকের সিলেট/১৬ আগস্ট/ডি/কেআর/ঘ.)

শেয়ার করুন