২৮ আগস্ট ২০১৭


বালাগঞ্জে বন্যা পরিস্থিতি অবনতি

শেয়ার করুন

রজত দাস ভুলন, বালাগঞ্জ থেকে : বালাগঞ্জে আবার ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হয়েছে। চারদিকে পানি আর পানি। গত শনিবার বন্যায় আক্রান্ত কুশিয়ারা ডাইক পরিদর্শন করেছেন সিলেট জেলা প্রশাসক রাহাত আনোয়ার। অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্যায় আক্রান্ত হয়েছে। উপজেলা সদরে ডিএন মডেল উচ্চ বিদ্যালয়, আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও রির্সোস সেন্টার সহ উপজেলা কমপ্লেক্স, বালাগঞ্জ বাজার আবারও বন্যার আক্রান্ত হয়েছে।

ভারতের উজান থেকে নেমে আসা পানির ঢল মিলে বন্যা সৃষ্টি হয়ে আক্রান্ত হয়ে পড়েছে বালাগঞ্জের অর্ধ লক্ষাধিক মানুষ। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বন্যার পানি বাড়েছে বলে জানিয়েছেন বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা। প্লাবিত এলাকায় খাদ্য ও বিশুদ্ধ পানির অভাব দেখা দিয়েছে। দেখা দিয়েছে নানান ধরণের পানিবাহিত রোগের। আমন ধান বন্যার পানিতে ভেসে গেছে। সমস্যা দেখা দিয়েছে, গোবাদি পশুর খাদ্য নিয়েও।

বালাগঞ্জ উপজেলার পূর্ব পৈলনপুর , বালাগঞ্জ পূর্বগৌরিপুর, বোয়ালজুড়, দেওয়ানবাজার ও পূর্ব গৌরিপুর ইউনিয়ন গুলোর অতিকাংশ গ্রামেই আক্রান্ত হয়ে পড়েছে। অর্ধেকের বেশি এলাকা কোথাও হাটু পানি আবার কোথাও কোমর পানিতে নিমজ্জিত। কুশিয়ারা পাড়ের মানুষের মধ্যে রীতিমত আতংকে রয়েছেন। অনেেেকই অনাহারে অর্ধহারে থাকা মানুষ পথ চেয়ে আছে ত্রাণের আশায়। উপজেলার কুশিয়ারা ডাইক বন্যার পানিতে তলিয়ে যাওয়ার কারণে আক্রান্ত হয়ে পড়েছে গ্রামের পর গ্রাম।

পূর্ব পৈলনপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল মতিন ও বালাগঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আব্দুল মুনিম বলেন, আমাদের ইউনিয়নের অধিকাংশ গ্রামই প্লাবিত। বোরো, আউশ, এখন আমন ধান সব পানিতে ডুবে নষ্ট হয়ে গেছে।

বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রদীপ সিংহ জানান, চতুর্থ বারের মত বন্যায় আক্রান্ত হয়েছে পড়েছে বালাগঞ্জের মানুষ। আমরা সব সময় খোজ খবর রাখছি।

 

 

(আজকের সিলেট/২৮ আগষ্ট/ডি/এমকে/ঘ.)

শেয়ার করুন