৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭


এক কিলোমিটার সড়কের জন্যে দুর্ভোগ!

শেয়ার করুন

নিজস্ব প্রতিবেদক : নগরীর উপকণ্ঠের গ্রাম, অথচ মনে হয় বিচ্ছিন্ন কোনো জনপদ। মাত্র এক কিলোমিটার দীর্ঘ একটি সড়কের জন্যে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এই গ্রামের মানুষদের।

গ্রামের নাম ছিটা গোটাটিকর। দক্ষিণ সুরমা উপজেলার কুচাই ইউনিয়নের অন্তর্গত এ গ্রাম। সিলেট সিটি কর্পোরেশনের ২৭ নং ওয়ার্ডের গা ঘেঁষেই এ গ্রামের অবস্থান।

নগরীর শেষ প্রান্ত থেকে ছিটা গোটাটিকর গ্রামে গিয়ে যুক্ত হওয়া সড়কটি কাঁচা। একটু বৃষ্টি হলেই কাদায় একাকার হয়ে যায় এ সড়ক। আর বর্ষা মৌসুমে তলিয়ে যায় পানিতে। ফলে কাদাজল মাড়িয়ে গ্রাম ছেড়ে বেরিয়ে আসতে হয় সাত-আটশ’ বাসিন্দাদের।

কেউ অসুস্থ হলে বা জরুরী প্রয়োজন হলে পোহাতে হয় সবচেয়ে বেশি দুর্ভোগ। দ্রুত বেরিয়ে আসার উপায় নেই কারো। আর স্কুল কলেজে যাওয়া শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ তো নৈমিত্তিক। প্রতিদিনই এই হাঁটুময় কাদামাখা পথ ডিঙিয়ে যেতে হয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠান।

অথচ মাত্র এক কিলোমিটারের এই সড়টি পাকা করা গেলেই দুর্ভোগ ঘুচতো এ গ্রামের বাসিন্দাদের। সে আশ্বাসও মিলেছিল স্থানীয় সাংসদ আর উপজেলা চেয়ারম্যানের কাছ থেকে। সেগুলো অবশ্যই নির্বাচনকালীন আশ্বাস। নির্বাচনের পর এসব ভুলে গেছেন তারা। ফলে ছিটা গোটাটিকর গ্রামবাসীর দুর্ভোগ ঘুচে নি।

এই গ্রামের তরুণ রবিন বিশ্বাস বলেন, নির্বাচনের আগে এখানকার সংসদ সদস্য আমাদের গ্রামের সড়কটি পাকা করে দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছিলেন। কিন্তু এখন পর্যন্ত এটি পাকা হয়নি। ফলে গ্রামের মানুষদের অবর্ণনীয় দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। বর্ষা মৌসুমে দুর্ভোগ আরও বেড়ে যায়।

এই গ্রামের বাসিন্দা পল্লী চিকিৎসক কৃষ্ণমনি বিশ্বাস বলেন, বর্ষা মৌসুমে এলাকার ছেলেমেয়েরা স্কুল-কলেজে যেতে পারে না সড়কের অভাবে। আর কেউ অসুস্থ হলে তো দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার কোনো উপায় নেই।

কুচাই ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডের সদস্য ও এই গ্রামের বাসিন্দা সবুজ কুমার বিশ্বাস বলেন, স্থানীয় সাংসদ মাহমুদ-উস সামাদ কয়েসের কাছে একাধিকবার সড়কটি পাকাকরণের দাবি জানানো হয়েছে। তিনি সবসময় আশ্বাস দিলেও এখনো কোনো কাজ হয়নি।

দক্ষিণ সুরমা উপজেলা চেয়ারম্যান আবু জাহিদও সরেজমিনের গ্রামে এসে সড়কটি পাকা করার আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু এই আশ্বাসেই আটকে আছে।

সবুজ বলেন, শুষ্ক মৌসুমে ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে এই সড়কে কিছু মাটি ভরাট করানো হয়। কিন্তু বর্ষায় এ মাটি কেটে যায়।

কুচাই ইউনিয়ন চেয়ারম্যান আবুল কালাম বলেন, সড়কের অভাবে এ গ্রামের লোকজন খুব কষ্টে আছেন। কিন্তু এক কিলোমিটার দীর্ঘ সড়ক পাকাকরার আর্থিক সঙ্গতি ইউনিয়ন পরিষদের নেই।

 

(আজকের সিলেট/৬ সেপ্টেম্বর/ডি/কেআর/ঘ.)

শেয়ার করুন