১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৭


সুনামগঞ্জে দুই পক্ষের সংঘর্ষে বিএনপি নেতাসহ নিহত ২

শেয়ার করুন

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলায় দু’পক্ষ গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এতে স্থানীয় বিএনপি নেতাসহ ২ জন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও অন্তত ১০ জন। আহতরা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন।

শনিবার সকাল ১১টার পর উপজেলার চৌমুনা পয়েন্টে এই সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

নিহত সেরুজ্জামান দোয়ারাবাজার উপজেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক। তিনি গোরেশপুর গ্রামের মৃত উমর আলীর ছেলে। নিহত অপর ব্যক্তি এবাদুল্লাহ বেরীগাঁও গ্রামের মৃত ফয়জুর রহমানের ছেলে।

স্থানীয় সূত্র জানায়, এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দোয়ারাবাজার উপজেলার গোরেশপুর ও বেরীগাঁও গ্রামের দুটি পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা চলছিল। গত রমজানে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোরেশপুর গ্রামের ছয়ফুল ইসলাম নামের এক যুবকের দাঁত ভেঙে দেয় বেরীগাঁও গ্রামের একদল যুবক। এরই প্রেক্ষিতে বেরীগাঁও গ্রামের কাওসার নামের এক যুবককে কুপিয়ে আহত করে গোরেশপুরের লোকজন।

এই ঘটনার জের ধরে শনিবার বেলা ১১টার দিকে চৌমুনা পয়েন্টে বিএনপি নেতা সেরুজ্জামানকে রামদা দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে একদল যুবক। পরে তাকে গুরুতর আহত অবস্থায় সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়ার পথে তার মৃত্যু হয়। পরে তার মৃত্যুর খবর শুনে সেরুজ্জামানের উত্তেজিত সমর্থকরা বেরীগাঁওয়ের লোকজনদের সাথে সংঘর্ষে জড়ায়। এতে এবাদুল্লাহ নামে একজন ঘটনাস্থলে নিহত হন। আহত হয় অন্তত আরও ১০ জন। তারা স্থানীয় হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছেন। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

দোয়ারাবাজার থানার ওসি এনামুল হক বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতয়েন করা হয়েছে। বর্তমানে এলাকার পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।

 

 

(আজকের সিলেট/১৬ সেপ্টেম্বর/ডি/এমকে/ঘ.)

শেয়ার করুন