১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭


ওসমানীনগরের এক শিক্ষিকাকে বাঁচাতে সাহায্যের আবেদন

শেয়ার করুন

ওসমানীনগর প্রতিনিধি : ওসমানীনগরের গাভুরটিকি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষিকা এমিলি বেগম (২৪) সন্তান প্রসবের সময় দু’টি কিডনী বিকল হয়ে যাওয়ায় তিনি মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছেন। তাকে বাঁচাতে কিডনী প্রতিস্থাপন করা জরুরী হয়ে পড়লেও অর্থের অভাবে তা পারছেন না তার স্বজনরা।

যার কারণে দেশের বিত্তবানদের কাছে সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন তার স্বজনরা। ইতিমধ্যে তার সিজার অপারেশনে ইনফেকশনও দেখা দিয়েছে। বর্তমানে তিনি সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে গাইনি বিভাগের ডাঃ জামিলা আলম ও কিশোয়ারা লায়লা এবং কিডনী বিভাগের প্রধান ডাঃ আলমগীরের অধীনে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এমিলির স্বামী মোঃ আলীম উদ্দিন জানান, এমিলির দু’টি কিডনী বিকল হয়ে পড়েছে। তাকে বাঁচাতে হলে জরুরী ভিত্তিতে একটি কিডনী প্রতিস্থাপন প্রয়োজন। ঢাকায় নিয়ে কিডনী প্রতিস্থাপন করতে প্রায় ৮-৯ লাখ টাকার প্রয়োজন রয়েছে। কিন্তু ইতিমধ্যে তার চিকিৎসার জন্য ৪লক্ষাধিক টাকা ব্যয় করে আমরা নিঃস্ব হয়ে পড়েছি। তাই সমাজের ভিত্তবানদের সহযোগীতা নেয়া ছাড়া আমাদের বিকল্প কোন পথ নেই।

প্রথম সন্তান প্রসবের জন্য এমিলিকে গত ১ আগষ্ট সিলেট ওইমেন্স মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঐদিন রাতেই সিজার অপারেশনের মাধ্যমে এক পুত্র শিশুর জন্ম দেন তিনি। সন্তান প্রসবের পর থেকেই এমিলির শারিরীক অবস্থার অবণতি হতে থাকলে আইসিইউ বিভাগে ভর্তি করা হয়। একপর্যায়ে ধরা পড়ে তার কিডনী দু’টি বিকল হয়ে পড়েছে।

৩ আগষ্ট এমিলিকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। ওসমানীর কিডনী বিভাগের প্রধান ডাঃ আলমগীরের অধীনে চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। ইতিমধ্যে তার সিজার অপারেশনের সেলাইয়ে ইনফেকশনও দেখা দিয়েছে। যার কারণে গাইনি বিভাগে ভর্তি রয়েছেন। এমিলি পুত্র সন্তানের জন্ম দিলেও আজও সন্তানকে কোলে নিয়ে আদর করতে পারেননি। জাতি গড়ার এই কারিগরকে বাঁচাতে সমাজের সকলের প্রতি সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেনর তার স্বামী ও পিতা।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. আর্ব্দু রকীব ভুঁইয়া অসুস্থতার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, টাকার অভাবে এমিলির পরিবার তার চিকিৎসা করাতে পারছেন না।

এমিলির স্বামী আলিম উদ্দীন বলেন, সমাজের বিত্তবানদের সহযোগীতা পেলে আমার স্ত্রীর কিডনী প্রতিস্থাপন সম্ভব। এজন্য বিত্তবানদের কাছে সাহায্য সহযোগীতা কামনা করেন তিনি।

এমিলিকে সাহায্য পাঠানো যাবে এমিলি বেগম, একাউন্ট নাম্বার ৯৯৯০০৮০০৮, সোনালী ব্যাংক বালাগঞ্জ শাখা, সিলেট অথবা বিকাশ নম্বর ০১৭৪৩৬৭০৪৫২।

 

(আজকের সিলেট/১৯ সেপ্টেম্বর/ডি/এমকে/ঘ.)

শেয়ার করুন