২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৭


২০ দফা দাবিতে শাবি ছাত্রলীগের সংবাদ সম্মেলন

শেয়ার করুন

শাবি প্রতিনিধি : সংবাদ সম্মেলন করে ২০ দফা দাবি জানিয়েছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। সোমবার দুপুরে শাবি প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তারা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সমস্যা তুলে ধরে এগুলো থেকে উত্তোরণে ২০ দফা দাবি জানায়।

শাবি ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রুহুল আমিনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইমরান খানের সঞ্চালনায় এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সদস্য ও শাবি শাখা সহ-সভাপতি আবু সাঈদ আকন্দ, কেন্দ্রীয় সদস্য ও শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাজিদুল ইসলাম সবুজ, সহ-সভাপতি মোস্তাকিম আহমেদ মোস্তাক ও বিভিন্ন পর্যায়ের নেতা-কর্মীরা।

শাবি ছাত্রলীগের ২০ দফার মধ্যে রয়েছে- বিশ্ববিদ্যালয়কে সেশনজটমুক্ত করতে দ্রুত পদক্ষেপ গ্রহণ; বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাফেটেরিয়া, ক্যান্টিন, ফুডকোর্ট, হলসমূহে সুলভমূল্যে মানসম্মত খাবারের ব্যবস্থা; সকল শ্রেণিকক্ষে ডিজিটাল যন্ত্রপাতি ও পর্যাপ্ত চেয়ার-টেবিল সরবরাহ করে যুগোপযোগী শ্রেণিকক্ষ গড়ে তুলা এবং লাইব্রেরিসমূহের আধুনিকীকরণ নিশ্চিত কররা; মেডিকেল সেন্টারের আধুনিকীকরণসহ সার্বক্ষণিক বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকের তত্ত্বাবধানে চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করা; শিক্ষার্থীদের বিনা মূল্যে অথবা কিস্তিতে ল্যাপটপ প্রদান ও পুরো বিশ্ববিদ্যালয়ে দ্রুতগতির ওয়াই-ফাই ব্যবস্থা নিশ্চিত করা;
বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষার্থীদের জন্য উন্নত আবাসন ব্যবস্থা এবং সকল ছাত্রীদের জন্য বিশ্ববিদ্যলয় এলাকার ভিতর অতিদ্রুত হল নির্মাণ; ছাত্রীদের জন্য বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিব ও দেশরত্ম শেখ হাসিনার নামে হল নির্মান; ছাত্রদের জন্য শেখ রাসেল হল নির্মাণ করতে হবে; ইভ টিজিংসহ সকল প্রকার নির্যাতন বন্ধের লক্ষ্যে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ; আদিবাসী, প্রতিবন্ধী, দরিদ্র ও দুর্ঘটনায় আহত শিক্ষার্থীদের বৃত্তি প্রদান, যথার্থ চিকিৎসা ব্যবস্থা নিশ্চিতকরণ ও শিক্ষা ব্যবস্থায় সমতা নিশ্চিত করা; সকল বিভাগে উন্নত গবেষণাগার স্থাপণ করা; ক্যাম্পাসের নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদারের লক্ষ্যে দ্রুত সীমানা প্রাচীর নির্মাণ ও পুরো বিশ্ববিদ্যালয় এলাকা সিসি ক্যামেরার আওতায় আনা; ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াতের সুবিধার জন্য পর্যাপ্ত নিজস্ব পরিবহণের ব্যবস্থা করা; বিশ্ববিদ্যলয় এলাকার সকল রাস্তা যাতায়াত উপোযোগী করা; বিশ্ববিদ্যালয়ের জরাজীর্ণ ভবনসমূহ অতিদ্রুত সংস্কারের আওতায় আনা; ছাত্রদের তিন হলের মধ্যবর্তী মসজিদ দ্রুত সংস্কার করে সকলের নামাজ পড়ার ব্যবস্থা এবং ছাত্র-ছাত্রীদের হলগুলোতে স্বস্ব ধর্মাবলম্বী শিক্ষার্থীদের জন্য প্রার্থনার সুব্যবস্থা নিশ্চিত করা; মাদক প্রতিরোধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা; ভবনগুলোতে সার্বক্ষণিক সুপেয় পানি ও পয়োনিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়ন করা; বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার দোকানগুলোকে নির্দিষ্ট নিয়মের মধ্যে এনে সুশৃঙ্খল পরিবেশ সৃষ্টি করা; শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য উন্নত আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা; প্রশাসনিক সকল দায়িত্বে মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধে বিশ্বাসী যোগ্য শিক্ষকগণকে নিয়োগ দেওয়া; উচ্চতর শিক্ষার জন্য বিদেশ গমনকারী যে সকল শিক্ষকের ছুটির মেয়াদ দীর্ঘদিন পূর্বেই শেষ হয়ে গিয়েছে তাদের পরিবর্তে মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধে বিশ্বাসী যোগ্য নতুন শিক্ষক নিয়োগ প্রদান এবং বহিরাগতদের অবাধে প্রবেশ নিষেধ করা।

(আজকের সিলেট/২৫ সেপ্টেম্বর/ডি/এসসি/ঘ.)

শেয়ার করুন