৮ নভেম্বর ২০১৭


ডিসেম্বরে চালু হচ্ছে বিয়ানীবাজার পাওয়ার গ্রিড স্টেশন

শেয়ার করুন

বিয়ানীবাজার প্রতিনিধি : বিয়ানীবাজারের চারখাইয়ে আগামী ডিসেম্বর মাসেই চালু হচ্ছে পাওয়ার গ্রিড স্টেশন। প্রায় ১০০ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মাণাধীন এই স্টেশন চালু হওয়ার পর এখান থেকে সিলেট জেলার ১৩টি উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হবে।

সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি সূত্রে জানা যায়, উপজেলার চারখাইয়ে বিয়ানীবাজার-সিলেট রোডের পাশে নতুন পাওয়ার গ্রিড স্টেশন নির্মাণকাজ শুরু হয় ২০১৫ সালের মার্চ মাসে। আগামী ৩০ বছরের চাহিদা, বিতরণ ব্যবস্থা ইত্যাদি চিন্তা মাথায় রেখে এটি নির্মাণ করছে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ (পিজিসিবি)।

৮০ এমবিএ ক্ষমতাসম্পন্ন এই গ্রিড স্টেশন নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে প্রায় একশত কোটি টাকা। এখান থেকে বিদ্যুৎ যাবে সিলেটের ১৩টি উপজেলায়। গত ৩০ জুনের মধ্যে পাওয়ার গ্রিড স্টেশনের নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার কথা ছিল। অতিবৃষ্টি ও বন্যার কারণে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান যথাসময়ে কাজ শেষ করতে না পারায় মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়েছে। আগামী ডিসেম্বরে এ গ্রিড স্টেশনের নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পর চালু হবে।

সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ সিলেটের ৮টি উপজেলায় এবং সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-২ অপর ৫টি উপজেলায় বিদ্যুৎ বিতরণ করে আসছে। সিলেটের কুমারগাঁও গ্রিড (৮টি উপজেলায়) এবং ফেঞ্চুগঞ্জ গ্রিড (৫টি উপজেলায়) থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয়। তবে কুমারগাঁও গ্রিডে ওভারলোডের সমস্যা রয়েছে। প্রায় সময়ই এটি ৬০ মেগাওয়াট বিদ্যুতের লোড নিতে পারে না।

বর্তমানে শাহজাহান উল্লাহ পাওয়ার জেনারেশন কোম্পানির তিনটি ইউনিট থেকে এই আট উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহ হয়। কোনো কারণে এ তিন ইউনিটের একটি বিকল হলে সরবরাহ বিঘ্ন ঘটে।এছাড়া কুমারগাঁও গ্রিড থেকে বিভিন্ন দূরবর্তী উপজেলায় বিদ্যুৎ সরবরাহে সিস্টেম লসও হয়। বিয়ানীবাজারে গ্রিড স্টেশন নির্মাণের পেছনে এসব বিষয়ও বিবেচনায় নেওয়া হয়েছে।

জেলার আটটি উপজেলায় নতুন আরও ১১টি উপকেন্দ্র ও দুইটি সুইচিং কেন্দ্রও স্থাপন করা হচ্ছে। এগুলো হচ্ছে- বিয়ানীবাজারের জলঢুপ ও আলীনগর, গোলাপগঞ্জের ভাদেশ্বর-বাঘা ও রঘুনাথপুর, বালাগঞ্জের বালাগঞ্জ সদর ও সাদিপুর, দক্ষিণ সুরমার নসিওরপুর, বিশ্বনাথের রশিদপুর, ফেঞ্চুগঞ্জের পালবাড়ি গ্রিড সংলগ্ন এবং দক্ষিণ সুরমা সদর দফতর সংলগ্ন সুইচিং স্টেশন।

সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার মাহবুবুল হক জানান- বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার উন্নতিকল্পে আগামী ৩০ বছরের চিন্তা মাথায় রেখেই বিয়ানীবাজারের চারখাইয়ে গ্রিড স্টেশন নির্মাণ করা হচ্ছে। ৮০ এমবিএ ক্ষমতাসম্পন্ন এ গ্রিড স্টেশন নির্মাণে ব্যয় হচ্ছে প্রায় এক শ কোটি টাকা। গ্রিড স্টেশন নির্মাণ প্রকল্পের কাজ শেষের দিকে রয়েছে। বর্তমানে গ্রিড স্টেশন থেকে বিদ্যুৎ সরবরাহে সংযোগ লাইন স্থাপনের কাজ চলছে। এ কাজ শেষে আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে স্টেশনটি চালু করা যাবে।’

সিলেট পল্লী বিদ্যুৎ সমিতি-১ এর বিয়ানীবাজার জোনের ডিজিএম অভিলাস চন্দ্র পাল জানান, প্রকল্পের কাজ শেষ হলে পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি অব বাংলাদেশ গ্রিড স্টেশন থেকে পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করবে।

 

(আজকের সিলেট/৮ নভেম্বর/ডি/কেআর/ঘ.)

শেয়ার করুন