৯ জুলাই ২০১৭


জাফলংয়ে কয়েকশত মানুষের ঝুঁকিপূর্ণ বসবাস

শেয়ার করুন

গোয়াইনঘাট প্রতিনিধি : জাফলংয়ের বস্তিতে নোংরা পরিবেশ আর স্বাস্থ্যঝুঁকি যেন শত শত বসবাসকারীর নিত্য দিনের সঙ্গী। অনিরাপদ বাসস্থান আর অপ্রত্যাশিত জীবন যেন তাদের বাতির নিচের অন্ধকারের মধ্যে দায়বদ্ধ।

জাফলংয়ের বল্লাঘাটের ব্যাপক এলাকা জুড়ে প্রায় পাঁচ একর জায়গায় রয়েছে কয়েকটি জরাজীর্ণ বস্তি। ঝুঁকি আছে জেনেও অভাবের তাড়নায় এখানে প্রায় ৪’শতাধিক হত দরিদ্র শ্রমিক পরিবারের বসবাস। দেখতে যেন লাগে অন্য জগতে বাস করছেন তারা।

সরেজমিন দেখা যায়, জীবনের ঝুঁকি নিয়েই পাহাড়ের মাঝে খোলা আকাশের নিচে ঝুঁকিপূর্ণ ঘর বানিয়ে খুপড়ি ঘরে ৪ শতাধিক দরিদ্র পরিবার বাস করছেন। এদের বেশির ভাগই সাধারণ শ্রমিক। কেউ রিক্সা চালান, কেউবা আবার পাথরের কাজ করে জীবিকা চালান। আর এ বস্তিতে বসবাসরত নি¤œ আয়ের এসব হত দরিদ্র জনগোষ্ঠীর লোকজনেরা সুচিকিৎসা, নাগরিক সুযোগ সুবিধা ও স্বাস্থ্য সম্মত স্যানিটেশন ব্যবস্থা থেকে রয়েছেন অনেকটাই বঞ্চিত। সুপেয় খাবার পানির ব্যবস্থা না থাকা ও খোলা যায়গায় মলমূত্র ত্যাগ করার কারণে জরাজীর্ণ ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বেড়ে উঠা এসব পরিবারের শিশুদেরও সব সময়ই নানা রোগ বালাই লেগেই থাকে। এছাড়াও এই বস্তির অধিকাংশ শিশু কিশোররাও শিক্ষার আলো থেকে বঞ্চিত রয়েছে। যেন এদের দেখার কেউ নেই। সব মিলিয়ে তাদের এই দৃরন্তপথের জীবন যেন খুব কষ্টের।

হবিগঞ্জ থেকে এসে বস্তিতে বাস করা হাসান মিয়া জানান, টাকা পয়সার অভাবে ছেলে মেয়ের ভবিষ্যতের কথা চিন্তা করে নিজের এলাকা ছেড়ে এখানে আসা। এখানে এসে কোন আশ্রয় না পেয়ে এখন বস্তিতে বাস করছি। ছেলে মেয়েকেও স্কুলে পড়ালেখার জন্য দিয়েছি।

 

(আজকের সিলেট/৯ জুলাই/ডি/জেবি/এসটি/ঘ.)

শেয়ার করুন