৩ নভেম্বর ২০১৭


খাদ্য গুদামে পোস্ট অফিস!

শেয়ার করুন

রজত দাস ভুলন, বালাগঞ্জ থেকে : বালাগঞ্জের বোয়ালজুড় বাজারে দীর্ঘ কয়েক যুগের পরিত্যক্ত একটি খাদ্য গুদামে পরিচালিত হচ্ছে পোস্ট অফিসের কার্যক্রম। যেটি বালাগঞ্জ উপজেলা পোস্ট অফিসের (৩১২০) একটি শাখা। আর এই শাখা ডাকঘরের অধীনে রয়েছে-বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়ন, বোয়ালজুড় ইউনিয়ন ও ওসমানীনগর উপজেলার উসমানপুর ইউনিয়নের প্রায় ৩০টি গ্রাম।

সরেজমিন গিয়ে দেখা গেছে-খাদ্য গুদামের জরাজীর্ণ একটি কক্ষে কয়েক বছর ধরে পোস্ট অফিসের কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে। পোস্ট অফিস কক্ষটির একটি দরজা থাকলেও সেটির নিচ অংশের প্রায় দেড় ফুট ভেঙ্গে পড়ে গেছে। পোষ্ট অফিস কক্ষটির সম্মুখে রয়েছে বোয়ালজুড় বাজারের মাছ বাজার ও কাঁচা বাজারের ময়লার স্তুপ। পোষ্ট অফিস কক্ষে প্রবেশ করার কোনো রাস্তা না থাকায় কাঁচা বাজারের ময়লার স্তুুপের উপর দিয়ে পোষ্ট অফিসে যেতে হয়। ময়লার দুর্গন্ধে পোস্ট অফিসে দায়িত্বরত কর্মকর্তা-কর্মচারীও সেবা নিতে আসা লোকজন নাক চেপে ধরেন।

তাই এখানকার দায়িত্বরতরা বোয়ালজুড় বাজারের দোকান গুলোতে বসে পোস্ট অফিসের কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকেন।

এই শাখায় সম্মানী ভাতা প্রাপ্ত একজন ব্রাঞ্চ পোষ্ট মাষ্টার (বিপিএম) ও একজন সরকারী পোস্টমাষ্টার দায়িত্ব পালন করে আসছেন।

বোয়ালজুড় বাজার শহিদ মিডিয়া এন্ড আইটি পয়েন্টের পরিচালক সাংবাদিক আব্দুস শহিদ ও মজলিশপুর গ্রামের বাসিন্ধা কলেজ ছাত্র ছালেহ আহমদ লিছান বলেন, পোস্ট অফিসের ভিতরের পরিবেশ দেখলে মনে হবে এটি কোনো গোয়ালঘরের চিত্র। আর বাইরে কাঁচা বাজার ও মাছ বাজারের ময়লার দুর্গন্ধের কারনে লোকজন সেখানে যেতেই চান না।

বোয়ালজুড় বাজার বণিক সমিতির সাবেক সেক্রেটারী আব্দুল হামিদ বলেন, ভংগুর অবস্থায় চলছে পোষ্ট অফিসের কার্যক্রম।

এলাকাবাসীর দাবীর পরিপ্রেক্ষিতে এখানে পোস্ট অফিসের একটি শাখা আনা হয়েছিল। প্রায় ৭ বছর ধরে উপজেলা কৃষি অফিসের নিয়ন্ত্রনাধীন পরিত্যক্ত খাদ্য গুদামের জরাজীর্ণ একটি কক্ষে এই পোস্ট অফিসের কার্যক্রম পরিচালিত হয়ে আসছে . আমার দায়িত্ব সময়ে আব্দুল মালিক জায়গীরদার জায়গা দিতে আগ্রহ প্রকাশ করলে ভবন না আসায় বিষয়টি আর আগায়নি।

বালাগঞ্জ সদর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: আব্দুল মুনিম বলেন, এলাকাবাসীর সুযোগ-সুবিধার কথা চিন্তা করে পোষ্ট অফিসটিকে স্থায়ীকরণ করা একান্ত প্রয়োজন। ৩টি ইউয়িনের জনসাধারন এখান থেকে সেবা নেয়। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ডাক বিভাগের এক কর্মকর্তা বলেন, বোয়ালজুড় বাজারের এই পোস্ট অফিসটিকে স্থায়ী করতে হলে তিন শতক ভুমির প্রয়োজন। আর এলাকাবাসী কেউ স্বেচ্ছায় তিন শতক ভুমি দান করলে পোস্ট অফিসের জন্য সরকারী ভাবে একটি ঘর বানিয়ে দেয়া সম্ভব হবে বলে তিনি তা জানান।

বালাগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ও বোয়ালজুড় ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ অনহার মিয়া বলেন, আসলে একটি স্থায়ী ভবন হওয়া খুবই জরুরী এব্যপারে যথাযথ কতৃপক্ষের সাথে আলোচনা করে কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহনে সচেষ্ট ভুমিকা রাখবো। তিনি আে বলেন চান্দাইড় পাড়ায় পোষ্ট অফিসের একটি ভবন নির্মান হলেও তা আজও চালু হয়নি। চান্দাইড় পাড়া পোষ্ট অফিসের ভবনে কার্যক্রম চালালে এলাকাবাসী এর সুফল পাবে কতৃপক্ষের সুদৃষ্টি কামনা করেন তিনি।

বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রদপি সিংহ জানান, বোয়ারজুড়ে সরকারী জায়গা রয়েছে এব্যপারে স্থানীয় চেযারম্যানদের সাথে আলাপ করে প্রয়োজনীয পদক্ষেপ গ্রহন করা হবে।

বালাগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেযারম্যান আবদাল মিয়া বলেন, পোষ্ট অফিসের স্থায়ী ভবন নির্মান করা দরকার এলাকার প্রয়োজনে । এব্যাপারে প্রশাসন সহ আমার ব্যক্তিগত চেষ্টা অব্যাহত থাকবে।

 

(আজকের সিলেট/৩ নভেম্বর/এসটি/ঘ.)

শেয়ার করুন