৮ ডিসেম্বর ২০১৭


ছাত্রলীগ কর্মী হত্যাকা‌ন্ডে থমথ‌মে মৌলভীবাজার, আটক ১

শেয়ার করুন

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারে দলের অভ্যন্তরীণ কোন্দলে দুই ছাত্রলীগকর্মী নিহত হয়েছেন। শহরের সরকারি স্কুল অডিটোরিয়ামের পেছনে গত বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এরপর থেকেই থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে ‍পুরো শহরজুড়ে। শহরের বিভিন্ন স্থানে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ। চলছে দুই নিহতের স্বজনদের বুকফাটা আহাজারি। আসামিদের গ্রেফতারে অব্যাহত রয়েছে পুলিশি অভিযান। এদিকে ঘটনার সাথে জড়িত সন্ধেহে রুবেল মিয়া নামে এক ছাত্রলীগ কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আটককৃত রুবেল মিয়া শহরের বেরিরচর এলাকার বাসিন্দা।

বৃহষ্পতিবারের ঘটনায় নিহতরা হলেন পুরাতন হাসপাতাল সড়কের সাবেক ব্যাংক কর্মকর্তা আবু বকর সিদ্দিকীর ছেলে মোহাম্মদ আলী শাবাব (২২) ও সদর উপজেলার দুর্লভপুর গ্রামের বিলাল মিয়ার ছেলে নাহিদ আলম মাহি (১৬)। নিহত মাহি মৌলভীবাজার সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের দিবা শাখার এসএসসি পরীক্ষার্থী আর শাবাব সরকারি কলেজের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র।

স্থানীয়রা জানান, সন্ধ্যায় মৌলভীবাজার সরকারি স্কুলের অডিটোরিয়ামের পেছনে ও স্কুল হোস্টেলের সামনে নাহিদ আলম মাহি ও মোহাম্মদ আলী শাবাবের উপর অতর্কিত হামলায় কুপিয়ে মারাত্মক জখম করে দুর্বৃত্তরা। এরপর তারা পালিয়ে যায়। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানকার কর্তব্যরত চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত মাহির বাবা বিলাল মিয়া জানান, তার ছেলে সরকারি স্কুল থেকে এবার এসএসসি পরীক্ষা দেওয়ার কথা ছিল। সে প্রাইভেট পড়ার জন্য প্রতিদিন সকাল সাড়ে ৮টায় বাড়ি থেকে বের হয় এবং এটাই ছিল ছেলের সঙ্গে তার শেষ দেখা। তিনি এ সময় বিলাপ করে বলেন, আমার সব স্বপ্ন ধুলিস্যাৎ হয়ে গেল!

ওদিকে নিহত স্কুল ছাত্র মাহির মামা ইমরান হোসেন জানান, আমাদের সবার বড় আশা ছিল তাকে নিয়ে। আজ সন্ধ্যার পর তার মৃত্যুর খবর পেয়ে আমরা হাসপাতালে আসি। কিন্তু তাকে কে বা কারা, ঠিক কি কারণে হত্যা করলো আমরা তা বুঝতে পারছি না।

নিহত কলেজ ছাত্র শাবাবের মামা রাফাত চৌধুরী জানান, শাবাব ছাত্রলীগের একজন কর্মী। তবে ঠিক কি কারণে এমন ঘটনা ঘটলো এখনও আমরা জানি না।

মৌলভীবাজার জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আসাদুজ্জামান রনি বলেন, কারণটা তারও অজানা। এ ব্যাপারে তিনিও অন্ধকারেই আছেন।

মৌলভীবাজার মডেল থানার ওসি সোহেল আহম্মদ বিবার্তাকে জানান, নিহতরা ছাত্রলীগ কর্মী। তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণেই এমন ঘটনা ঘটেছে বলে প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে। এঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে।

(আজকের সিলেট/৮ ডিসেম্বর/প্রতিনিধি/এসটি/ঘ.)

শেয়ার করুন