১২ জানুয়ারি ২০২২


বালাগঞ্জে শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়া নিয়ে অব্যবস্থাপনা, ক্ষোভ

শেয়ার করুন

বালাগঞ্জ প্রতিনিধি : বালাগঞ্জ উপজেলা শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনা ভ্যাকসিন কার্যক্রম নিয়ে শিক্ষার্থীদের ক্ষোভ ও হট্টগোল আর হতাশা বিরাজ করছে। সরেজমিনে দেখা যায় এই ক্ষোভের নৈপথ্যে রয়েছে নানাবিধ কারণ। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা সহ অন্যান্য কর্মকর্তাদের সামনে মেয়েদেরকে টিকা পোষ করছেন পুরুষ কর্মী। একর্মীর গায়ে দেখা যায়নি নার্সিং পোশাক। জানতে চাইলে জবাব না দিয়েই বেরিয়ে যান তিনি।

সূত্রে জানা যায়, টিকা কার্যক্রম সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৪টা অবধি চলার কথা। নির্ধারিত সময়ে বালাগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের নার্সরা টিকা কার্যক্রম বন্ধ করে দেয়। কিন্তু দেখা যায় ৫টা পর্যন্ত টিকা কার্যক্রম চলে নার্সবিহীন।

চান্দাইর পাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী জিসান জানান, তিনি সকাল ১১টায় এসেছেন টিকা দেয়ার জন্য।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক ছাত্রী বলেন, সকালে এসেছি সারা দিন না খেয়ে আছি। বিকেল ৫ টা বাজলেও টিকা দিতে পারেননি তারা।

শিক্ষার্থীদের অভিভাবক জানান, নিয়মবহির্ভূত ভাবে টিকাদান চলছে। আমরা বাচ্চাদের নিয়ে এসেছি সকালে মাগরিবের আযান হচ্ছে ভেতর থেকে বার বার বলা হচ্ছে টিকা দেবে নিরুপায় হয়ে চলে যাচ্ছেন বলে জানান তারা। শিক্ষার্থীরা অস্থায়ী টিকা কেন্দ্রের গেইটে ধরে হৈছৈ করছে। বালাগঞ্জ সরকারি ডিগ্রী কলেজে টিকা কার্যক্রমে এচিত্র দেখা যায়।

উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা বজলুর রশিদ বলেন, একদিনে ৬টি প্রতিষ্টানের ১৮শ শিক্ষার্থীদের মাঝে করোনা টিকা প্রদানের কথা ছিল। কিন্তু সরেজমিন সাড়ে নয়শ টিকা প্রদান করেছেন দেখা যায়।

বালাগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার রোজিনা আক্তার বলেন, পুরুষ কর্মী দিয়ে শিক্ষার্থীদের মাঝে টিকা পোষ না করার জন্য উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তাকে বলেছি।

শেয়ার করুন