২৪ জানুয়ারি ২০২৩


হবিগঞ্জে মামলার বাদী ও তিন আসামির সাজা

শেয়ার করুন

হবিগঞ্জ প্রতিনিধি : হবিগঞ্জে আদালতে মিথ্যা তথ্য দিয়ে ফেঁসে গেলেন মামলার বাদী ও আসামিরা। এ ঘটনায় বিচারক মামলার বাদীকে তিন দিনের এবং তিন আসামিকে একদিনের কারাদণ্ড প্রদান করেছেন।

মঙ্গলবার দুপুরে হবিগঞ্জের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট হারুন-অর-রশীদ এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্রে জানা যায়, হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার নোয়াগাঁও (চলিতাতলা) গ্রামের মৃত ইন্তজ উল্লার ছেলে ২০২০ সালের ১৮ আগস্ট তারিখে মারামারির ঘটনায় একই গ্রামের মৃত মফিজ উল্লার দুই ছেলে আব্দুল হাইদ ও ফরিদ মিয়া এবং ফরিদ মিয়ার ছেলে নুরুজ্জামান মিয়াকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন। মামলাটি বদলি হয়ে বিচারের জন্য হবিগঞ্জের চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে যায়। মামলার অভিযোগ গঠনের দীর্ঘদিন পরও সাক্ষী হাজির না করায় বিজ্ঞ বিচারক গত ১৩ অক্টোবর ধার্য তারিখে বাদী আমীর হোসেনকে কেন সাক্ষী হাজির করা হচ্ছে না জিজ্ঞাসা করলে তিনি তার শাশুড়ি মারা গেছেন বলে জানান। এ সময় আসামিরা আমীর হোসেনের দেওয়া এমন তথ্য মিথ্যা বলে প্রতিবাদ করেন।

এ নিয়ে বিভ্রান্তি দেখা দিলে বিজ্ঞ বিচারক উভয়পক্ষকে বলেন, তিনি বিষয়টি তদন্তের আদেশ প্রদান করবেন এবং যারা মিথ্যা বলবে তাদেরকে কারাগারে প্রেরণ করা হবে। পরে তথ্য যাচাইয়ের জন্য বিজ্ঞ বিচারক বাহুবল থানাকে নির্দেশ প্রদান করা হলে বাহুবল থানা পুলিশ তদন্ত করে জানায়, মামলার বাদী আমীর হোসেনের শাশুড়ি বাহুবল উপজেলার সুন্দ্রাটিকি গ্রামের আব্দুল কাদিরের স্ত্রী রূপচান বিবি জীবিত এবং সুস্থ আছেন।

মঙ্গলবার মামলার ধার্য তারিখে উভয়পক্ষ আদালতে উপস্থিত হলে বিজ্ঞ বিচারক প্রতিবেদন দৃষ্টে বাদী আমীর হোসেনকে তিন দিনের এবং তিন আসামিকে একদিন করে কারাদণ্ডের আদেশ প্রদান করেন।

শেয়ার করুন