আজ বৃহস্পতিবার, ১২ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

হিজরাদের কাছে জিম্মি ‘নতুন বর’

  • আপডেট টাইম : February 9, 2018 6:01 AM

ওসমানীনগর প্রতিনিধি : ওসমানীনগরে হিজরাদের বখশিসের নামে বেপরোয়া চাঁদাবাজি করে আসছে । বিয়ে এবং প্রবাসীযাত্রীদের গাড়ির গতিরোধ করে চাঁদা আদায় করছে তারা। তাদের বেপরোয়া চাঁদাবাজিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন স্থানীয় ভূক্তভোগীরা। দীর্ঘদিন ধরে এই চাঁদাবাজির ঘটনা চলে আসলেও কার্যত কোন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।

এদিকে, হিজরাদের চাঁদাবাজি কালে বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা প্রকাশ করেছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা। বখশিসের নামে চাঁদা আদায় করতে গতিশীল গাড়ির সামনে ঝাঁপিয়ে পড়ে গতিরোধ এবং তাদের কাংখিত চাঁদা না দিয়ে যেতে চাইলে গাড়িতে ঝুলে থাকে তারা। অনেক সময় চলন্ত গাড়িতে ঝুলে থাকতেও তাদের দেখা যায়। এমন পরিস্থিতিতে যখন-তখন বড় ধরণের দূর্ঘটনার আশংকা রয়েছে। এছাড়া তাদের চাঁদাবাজিকালে মহাসড়কের যানজটেরও সৃষ্টি হচ্ছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, বেশ কিছুদিন যাবৎ ওসমানীনগর উপজেলার গোয়ালাবাজার, তাজপুর, দয়ামীর ও শেরপুর এলাকায় মহাসড়কের পাশে ওৎপেতে থাকে হিজরারা। কোন বিয়ের গাড়ি বা প্রবাসী যাত্রীর দামি গাড়ি দেখা মাত্রই গাড়ির সামনে ঝাঁপিয়ে পড়ে বখশিস হিসেবে ৫ হাজার টাকা দাবি করে। কোন কোন সময় গাড়ির চাবিও কেড়ে নেয়। টাকা পাওয়ার আগ পর্যন্ত বিভিন্ন অশ্লিল অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শনসহ অশালীন মন্তব্য শুরু করে তারা। হিজরাদের এমন আচরণে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে পড়তে হয় বর এবং বরযাত্রী ও প্রবাসী যাত্রীদের। তাদের হাত থেকে রক্ষা পেতে হলে কমপক্ষে ১হাজার টাকা গুণতে হয়।

গোয়ালাবাজার মাইক্রোবাস শ্রমিক উপ-কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী নাঈমুর রহমান শামীম বলেন, হিজরারা মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে ওৎপেতে বসে থাকে। সাজানো বিয়ের গাড়ি দেখা মাত্রই গাড়ির সামনে চলে আসে। এসময় হিজরারা গাড়ির চাবি নিয়ে নেয়। টাকা পাওয়ার আগ পর্যন্ত অশ্লিল অঙ্গভঙ্গি প্রদর্শন করে তারা এতে বিব্রতকর পরিস্থিতির সম্মুখিন হতে হয়। অনেক সময় গাড়ি ছেড়ে যেতে চাইলে গাড়িতে ঝুলে থাকে তারা।

ওসমানীনগর থানার ওসি মোহাম্মদ সহিদ উল্যা বলেন, বিষয়টি আমাদের জানা নেই। এবিষয়ে কেউ কোন অভিযোগও করেনি। তবে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

(আজকের সিলেট/৯ ফেব্রুয়ারি/ডি/এসটি/ঘ.)

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ