আজ শনিবার, ১৪ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

প্রক্টর ও প্রভোস্টদের প্রতি হতাশ শাবি উপাচার্য

  • আপডেট টাইম : February 21, 2018 4:55 PM

শাবি  প্রতিনিধি

আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবসের কর্মসূচিতে সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে না পারায় প্রক্টর ও প্রভোস্টদের প্রতি হতাশা প্রকাশ করেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

বুধবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ উপলক্ষে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ নানা আয়োজনের কর্মসূচি হাতে নিয়েছিল।

সকাল ১১টায় মিনি অডিটোরিয়ামে ‘ভাষা আন্দোলন, বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বিশ্ববিদ্যালয়য়ের শিক্ষক, শিক্ষার্থী কর্মকর্তা, কর্মচারীর উপস্থিতি  আশানুরূপ ছিলনা।

বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের ব্যর্থতাকে দায়ী করে অনুষ্ঠান শেষে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, আমি হতাশ। এটা বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসিয়াল প্রোগ্রাম। প্রক্টরিয়াল বডি, ছাত্র উপদেশ ও নির্দেশনা, হলের প্রভোস্ট, বিভিন্ন অনুষদের ডিন এবং বিভাগিয় প্রধানদের উচিত ছিল সবার উপস্থিতি নিশ্চিত করা। আমি আশা করি ভবিষ্যতে এধরনের অনুষ্ঠানে সবাই স্বতস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করবে।

এদিকে আলোচনা সভার প্রবন্ধ উপস্থাপক অধ্যাপক ড. ফয়সল আহম্মদ বিএনপি-জামায়াতন্থী শিক্ষক হওয়ায় আগেরদিনই এই অনুষ্ঠান বর্জনের ঘোষণা দেয় শাখা ছাত্রলীগ।

শাখা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য আবু সাইদ আকন্দ এবং শাখা ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সদস্য সাজেদুল ইসলাম সবুজ বলেন, ‘ভাষা দিবসের আলোচনা অনুষ্ঠানে বিএনপি-জামায়াতপন্থী শিক্ষককে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপক করা হয়েছে; যা মুক্তিযুদ্ধের স্বপক্ষের শক্তির শাসনামলে একটি বিরল ঘটনা। আদর্শিক দৃষ্টিকোন থেকে আমরা অনুষ্ঠান বর্জন করেছি।

সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অসহযোগিতা ও আমন্ত্রন না জানানোর অভিযোগে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সকল কর্মসূচি বর্জন করেছে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটও।তারা আলাদাভাবে নিজেদের আয়োজনে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছে।

সকাল সাড়ে সাতটায় বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সামনে বিশ্ববিদ্যালয় ও জাতীয় পতাকা অর্ধনমিত করে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা ও মহান শহীদ দিবসের আয়োজনের আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়।

পরে সকাল পৌনে আটটায় কন্দ্রীয় শহীদ মিনারে বিশ্ববিদ্যালয়ের পক্ষ থেকে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ।

পর্যায়ক্রমে শিক্ষক সমিতি, প্রেসক্লাব, অফিসার্স এসোসিয়েশন, শাখা ছাত্রলীগ, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বিভিন্ন সংগঠন পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন।

সকাল নয়টা থেকে প্রশাসনিক ভবনের সামনে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের সন্তান এবং ইউনিভার্সিটি স্কুলের শিক্ষার্থীদের নিয়ে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়।

সকাল ১১টায় মিনি অডিটোরিয়ামে ‘ভাষা আন্দোলন বাঙালি জাতীয়তাবাদ ও বাংলাদেশ’ শীর্ষক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন সমাজকর্ম বিভাগের অধ্যাপক ড. ফয়সল আহম্মদ।

এসময় প্রধান অতিথি হিসেবে উপাচার্য এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. মো. ইলিয়াস উদ্দীন বিশ্বাস উপস্থিত ছিলেন।

ভাষা দিবস উদযাপন কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. সৈয়দ সামসুল আলমের সভাপতিত্বে প্রবন্ধের প্যানেল আলোচক হিসেবে বক্তব্য রাখেন অধ্যাপক ড. মো. শামসুল হক প্রধান ও ড. মো. জফির উদ্দিন।

 

 

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ