আজ সোমবার, ৮ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

সিলেটে লাগামহীন ‘দ্রব্যমূল্যের’ পাগলা ঘোড়া!

  • আপডেট টাইম : May 19, 2018 6:00 AM

শহীদুর রহমান জুয়েল : মাহে রমজানের শুরতেই আধ্যাতিক রাজধানী সিলেটে লাগামহীন ভাবে ছুটছে দ্রব্যমূল্যের পাগলা ঘোড়া। তাকে যেন কিছুতেই থামিয়ে রাখা যাচ্ছেনা। রমজান শুরুর ঠিক আগের দিনও ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে চেইন শপ স্বপ্ন সহ একাধিক প্রতিষ্ঠানকে অতিরিক্ত মূল্য রাখার দায়ে জরিমানা আদায় করেছে। তার পরও যেন স্বস্থি পাচ্ছেন না নগরবাসী। আর পণ্য সামগ্রী সময় ও চাহিদা অনুযায়ী বাজারে না আসা, বেশি দামে ক্রয় করার কারণেই বাজার দর বেড়ে যায় বলে ব্যবসায়ীরা জানিয়েছেন।

গত সপ্তাহের তুলনায় এ সপ্তাহে বিশেষ করে সব ধরনের মাংস, সবজি, কাচা মরিচ, বেগুনের দাম বেশি বৃদ্ধি পেয়েছে। এছাড়াও সব ধরনের শাকের দাম দ্বিগুণ হারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

নগরীর আম্বখানা কাঁচাবাজার ঘুরে দেখা যায়– প্রতি কেজি আদা ১০০ থেকে ১০৫ টাকা, পেঁয়াজ ২৬ থেকে ২৯ টাকা, রসুন ৪০ থেকে ৯৫ টাকা, টমেটো বিক্রি হচ্ছে ৪৫ থেকে ৬০ টাকা, কাঁচা মরিচের কেজি ৫৫ থেকে ৭০ টাকা, ছোলা ৫৬ টাকা, সোয়াবিন তেল ৫ লিটার ৪৮০ টাকা, এক লিটার ৭৪ টাকা ও দুই লিটার ১৯৫ টাকা দরে বিক্রি করা হচ্ছে।

মাংস বাজার : বাজারে গরু, খাসি ও মুরগির মাংসের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। বর্তমানে প্রতি কেজি গরুর বিক্রি হচ্ছে ৪৮০ টাকা। প্রতি কেজি মুরগির মাংস বিক্রি হচ্ছে ১৪০ টাকা। প্রতি কেজি খাসির মাংস বিক্রি হয়েছে ৭০০ টাকায়। মাংসের পাশাপাশি ডিমের দাম ও বাড়ানো হয়েছে। গরুর মাংসের ন্যায় খাসির মাংসেরও দাম বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাজারগুলোতে প্রতি হালি ডিম ৩২ থেকে ৩৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া দেশি মসুর ডাল প্রতি কেজি ১৪০ থেকে ১৫০ টাকা, ভারতীয় ১০০ টাকা, মুগ ডাল ১২০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

ব্যবসায়ী সালাম জানান, কয়েকদিনের টানা বৃষ্টিতে বাজারে সব রকম সবজিসহ অন্যান্য পণ্য চাহিদার তুলনায় কম সরবারাহ হচ্ছে তাই বাধ্য হয়েই আমাদের বেশি দামে ক্রয় করার কারণে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে। তবে দুই ত্রক দিনের মধ্যে বাজার পূর্বের স্থানে ফিরে যাবে বলে আশা করেন ত্রই ব্যবসায়ী।

সিলেট নগরীর আম্বখানা বাজার করতে আসা নাসরিন জানান, আগামি কাল থেকে পবিত্র মাহে রমজান শুরু। সবকিছুর দাম একটু বেশি মনে হচ্ছে। রমজান মাসকে কেন্দ্র করে যদি বাজার গুলো মনিটরিংয়ের আওতায় আনা যেত তাহলে সাধারণ মানুষকে এত ভোগান্তি পোহাতে হতো না। বৃষ্টির অযুহাত দেখিয়ে ব্যবসায়ীরা সব সবজির দাম বৃদ্ধি করে বিক্রি করছে যাতে সাধারণ ক্রেতাদেরকে বিপাকে পড়তে হচ্ছে।

সিলেটের অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট জনাব সন্দ্বীপ কুমার সিংহ বলেন, রমজানে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায়ে রাখতে প্রতিবারের ন্যায় এবারো এই কমিটি সিলেটে মাঠ পর্যায়ে কাজ করবে।

 

(আজকের সিলেট/১৯ মে/ডি/এমকে/ঘ.)

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ