আজ শুক্রবার, ৬ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

নবীগঞ্জে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে তৎপর সম্ভাব্য প্রার্থীরা

  • আপডেট টাইম : January 14, 2019 12:57 PM

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি : জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রেশ না কাটতেই নবীগঞ্জে উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তোড়জোড় শুরু হয়ে গেছে। উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা না হলেও মাঠ পর্যায়ে গণসংযোগে নেমে পড়েছেন নবীগঞ্জের সম্ভাব্য প্রার্থীরা। এসব প্রার্থীরা তাঁদের তৃণমূল পর্যায়ের কর্মী-সমর্থকদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করতে দেখা গেছে।

নির্বাচন কমিশনের প্রাথমিক ঘোষণা অনুযায়ী এ বছরের মার্চে দলীয় প্রতীকে উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই আভাস পেয়েই উপজেলার সর্বত্র শুরু হয়েছে নির্বাচনী আলোচনা। মাঠ পর্যায়ের পাশাপাশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তাদের সমর্থকরা দিচ্ছেন বিভিন্ন পোষ্ট।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ১৩টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভা নিয়ে গঠিত নবীগঞ্জ উপজেলা। এবার এ উপজেলায় ভোটার সংখ্যা ২ লক্ষ ৩৬ হাজার ৮ শত ৩৮ জন। ইতোমধ্যে আওয়ামী লীগের হয়ে নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করতে পারেন এমন সম্ভাব্য অনেক প্রার্থীর নাম বেশ জোরেশোরে উচ্চারিত হচ্ছে। এবারে উপজেলা পর্যায়ে কোন দলের কারা হবেন প্রার্থী, সেই হিসাব-নিকাশ নিয়ে রাজনৈতিক মহলে নানা আলোচনার ঝড় বইছে।

সম্প্রতি জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নৌকার পালে হাওয়া লাগায় ইতোমধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতারা উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন পেতে পেতে দলীয় হাইকমান্ডেও দৌড়-ঝাঁপ শুরু করেছেন। তবে বিএনপিসহ অন্যান্য দলের মধ্যে উপজেলা নির্বাচন নিয়ে কোন তৎপরতা তেমন লক্ষ করা যায়নি। বিএনপি দলীয় একটি সূত্র জানায়, নির্বাচনে বিএনপি অংশ নেবে কি না তা নিয়ে কিছুদিনের মধ্যে আলোচনা হবে।

২০১৪ সালের ২৩ মার্চ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ১৯ দলীয় জোটের একক প্রার্থী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান শেফুকে প্রায় ৯ হাজার ভোটের ব্যবধানে হারিয়ে নির্বাচিত হন ক্ষমতাসীন জোট আওয়ামীলীগ মনোনীত হবিগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি এড. আলমগীর চৌধুরী। আলমগীর চৌধুরী পেয়েছিলেন ৪২ হাজার ৪৩ ভোট। আর মুজিবুর রহমান সেফু পেয়েছিলেন ৩৩ হাজার ২৩১ ভোট।

বর্তমান চেয়ারম্যান এড. আলমগীর চৌধুরী ছাড়াও আওয়ামী লীগ থেকে যাদের নাম সর্বত্রই শোনা যাচ্ছে তারা হলেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও গজনাইপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ইমদাদুর রহমান মুকুল, সদ্য প্রয়াত সাবেক এমপি এড. আব্দুল মোছাব্বির’র পুত্র হবিগঞ্জ জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমানে জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য এড. সুলতান মাহমুদ, উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ও চেয়ারম্যান সমিতির সভাপতি ইজাজুর রহমান, নবীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ও উপজেলা যুবলীগ আহবায়ক আলহাজ্ব ফজলুল হক চৌধুরী সেলিম।

অপরদিকে, গত নির্বাচনে ২০ দলীয় জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট থেকে থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান শেফু ও সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হাই, উপজেলা জাতীয় পাটির আহ্বায়ক ডা. শাহ আবুল খায়ের প্রচারণা চালাচ্ছেন।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ