আজ সোমবার, ১৮ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

সুনামগঞ্জে ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থী ‘স্বশিক্ষিত’

  • আপডেট টাইম : ফেব্রুয়ারি ২৬, ২০১৯ ৯:১৩ পূর্বাহ্ণ

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি : উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদে সুনামগঞ্জের ১০ উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দ্বী করছেন ৩১ জন প্রার্থী। এর মধ্যে আওয়ামী লীগের প্রার্থী ১০ জন, স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগ নেতা ১৫ জন, বিএনপির দলীয় নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ৪ জন, জাতীয় পার্টির ১ জন ও ১ জন জমিয়ত নেতা।

চেয়ারম্যান প্রার্থীদের মধ্যে স্নাতকোত্তোর মাত্র ৫ জন, স্নাতক পাশ ৮ জন, এইচএসসি পাশ ৪ জন, এসএসসি পাশ ৫ জন, অষ্টম শ্রেণি পাশ ৪ জন ও স্বশিক্ষিত ৫ জন। জেলা রিটার্নিং অফিসারের কাছে দাখিল করা প্রার্থীদের হলফনামা সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী জেলা যুবলীগের আহ্বায়ক খায়রুল হুদা চপলের শিক্ষাগত যোগ্যতা এম.এস.এস, স্বতন্ত্র প্রার্থী সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মোবারক হোসেনের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি, যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ নেতা রাশেদ বখ্ত নজরুল স্বশিক্ষিত ও আওয়ামী লীগ নেতা সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের সাবেক ভিপি মনিষ কান্তি দে মিন্টু বি.এ, এল.এল.বি পাশ।

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সুনামগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল কালামের শিক্ষাগত যোগ্যতা স্বশিক্ষিত। স্বতন্ত্র প্রার্থী দক্ষিণ উপজেলা বিএনপির সভাপতি ফারুক আহমদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি।

জামালগঞ্জ উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইউসুফ আল আজাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি, স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাচনাবাজার ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান রেজাউল করিম শামীমের শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি ও জমিয়ত নেতা সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মুহাম্মদ রশীদ আহমদ স্বশিক্ষিত।

দিরাই উপজেলায় চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী প্রদীপ রায়ের শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি আলতাব উদ্দিন এইচএসসি, জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য মঞ্জুর আলম চৌধুরী এসএসসি ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি রঞ্জন কুমার রায় এইচএসসি পাশ।

শাল্লা উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী চৌধুরী আব্দুল্লা আল মাহমুদের শিক্ষাগত যোগ্যতা এম.এস.এস এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি অ্যাড. অবনী মোহন দাসের শিক্ষাগত যোগ্যতা এম.এ, এলএলবি।

বিশ্বম্ভরপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত রফিকুল ইসলাম তালুকদার অষ্টম শ্রেণি, বর্তমান চেয়ারম্যান, বিএনপি’র উপজেলা কমিটির সাবেক সভাপতি হারুন অর রশিদ এমএ,এমএড,এলএলবি ও আওয়ামী লীগ নেতা সফর উদ্দিন স্বশিক্ষিত।

তাহিরপুর উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত জেলা আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক করুণা সিন্ধু চৌধুরী বাবুলের শিক্ষাগত যোগ্যতা স্নাতক ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জেলা বিএনপির সহ সভাপতি সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান আনিসুল হক বি.এস.সি পাশ।

ছাতক উপজেলা পরিষদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফজলুর রহমান স্বশিক্ষিত ও স্বতন্ত্র প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আওয়ামী লীগ নেতা অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল এসএসসি পাশ।

দোয়ারাবাজার উপজেলায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ডা. আব্দুর রহিমের যোগ্যতা এম.বি.বি.এস, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের একাংশের আহ্বায়ক ফরিদ আহমদ তারেকের শিক্ষাগত যোগ্যতা এইচএসসি , আওয়ামী লীগ নেতা দেওয়ান তানভির আশরাফি বাবুর যোগ্যতা স্নাতক (বিবিএ), বিএনপি নেতা হারুনুর রশিদের যোগত্য এল.এল.বি ও জাতীয় পার্টির নেতা রেনু মিয়ার শিক্ষাগত যোগ্যতা অষ্টম শ্রেণি।

ধর্মপাশা উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মো. শামীম আহমেদ মুরাদের শিক্ষাগত যোগ্যতা বি.এ, স্বতন্ত্র প্রার্থী উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ফখরুল ইসলাম চৌধুরী (বিএ, এলএলবি), সাধারণ সম্পাদক শামীম আহমেদ বিলকিসের শিক্ষাগত যোগ্যতা বি.এ ও উপজেলা যুবলীগের সভাপতি মোজাম্মেল হোসেন রোকনের শিক্ষাগত যোগ্যতা এসএসসি।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ