আজ বৃহস্পতিবার, ১১ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

সরকারিভাবে নামমাত্র খরচে কোরিয়া যেতে চান?

  • আপডেট টাইম : March 4, 2019 5:47 AM

ডেস্ক রিপোর্ট : বাংলাদেশ সরকার এবং দক্ষিণ কোরিয়া সরকারের মধ্যে সমঝোতা স্মারক অনুযায়ী ২০০৮ সাল থেকে কোরিয়ান সরকার বাংলাদেশ থেকে প্রচুর দক্ষ এবং অদক্ষ শ্রমিক নিচ্ছে। বিশ্বের এই বৃহৎ অর্থনীতির দেশে প্রতিবছর উৎপাদনমূখী কাজে গতি বৃদ্ধি করতে বাংলাদেশসহ মোট ১৬ টি দেশ থেকে শ্রমিক নিয়োগ দেয় কোরিয়ান সরকার। চলতি বছর এই নিয়োগে আবেদন করতে পারবে যে কেউ । তবে আবেদন করার ক্ষেত্রে যোগ্যতার প্রয়োজন রয়েছে ।

আবেদন করার ক্ষেত্রে বয়স হতে হবে ১৮ থেকে ৩৯ বছর। থাকতে হবে এম আর পি (MRP) পাসপোর্ট। কোরিয়ান ভাষায় অদক্ষ ও কালার ব্লাইন্ডনেস থাকা যাবেনা। কোরিয়াতে ৫ বছরের বেশি বা অবৈধ ভাবে অবস্থান করেনি যারা। এ ছাড়া বাংলাদেশের নাগরিক হতে হবে এবং রাষ্ট্রদ্রোহী কোনো কাজে জড়িত থাকা যাবেনা।

প্রতি বছরের মত এই বছরও আগামী সপ্তাহে বাংলাদেশ সরকারের অধীনস্থ “বাংলাদেশ ওভারসীজ এমপ্লয়মেন্ট এন্ড সার্ভিসেস লিমিটেড (বোয়েসেল)” অনলাইনে আবেদন গ্রহন করবে। আগ্রহীরা আবেদন করতে পারেন। পুরো প্রক্রিয়া হবে আগ্রহী প্রার্থী এবং বাংলাদেশ সরকারের মধ্যে। সরকারীভাবে কোরিয়া যেতে বিমান ভাড়া, মেডিকেল ফি, কোরিয়ান ভাষা শিক্ষা এবং বোয়েসেলের নির্ধারিত ফি ছাড়া আর কোনো খরচ লাগেনা, যার পরিমান ৮০-৯০ হাজার টাকার মত। এই লেনদেন করতে হবে সোনালী ব্যাংকের সাথে (বোয়েসেল নির্দেশনা অনুয়ায়ী)।

শ্রমিক সিলেকশন পদ্ধতি হল, সার্কুলার হওয়ার পর অনলাইনে আবেদন করতে হয় (শুধুমাত্র নির্ধারিত ৮-১২ ঘন্টা সময়ের মধ্যে)যার জন্য একদিন সময় বরাদ্দ থাকে।

লটারীপ্রাপ্ত ব্যাক্তিদের সোনালী ব্যাংকে গিয়ে বোয়েসেলের নামে ২ হাজার টাকা পে-অর্ডার করতে হয় এবং সাথে আবেদনপত্র পূরন করে সাথে পাসপোর্ট এর কালার স্ক্যান কপি বোয়েসেলে জমা দিতে হয়।

আগ্রহী প্রার্থী কতটা দক্ষ, তা চেক করতে কাগজপত্র জমা দেয়ার ২০-২৫ দিন পর থেকে কোরিয়ান ভাষা সম্পর্কে কোরিয়ান ভাষার উপর পরীক্ষা নেয়া হয়। কোরিয়ান ভাষা পরীক্ষায় পাশ করার পর স্কীল টেস্ট হয়। স্কীল টেস্টে পাশ করার পর মেডিকেল করে প্রার্থীর কাগজপত্র বোয়েসেলে জমা দিলে, বোয়েসেল প্রার্থীর কাগজপত্র কোরিয়া পাঠিয়ে দেবে। এভাবে সম্পূর্ণ কাজ সম্পাদন করা হয়।

কোরিয়া গিয়ে নিম্মোক্ত সুবিধা পাবেন সিলেক্টেড প্রার্থীরা। সুবিধাগুলো হল, মাসে দেড় লক্ষ টাকা বেতন বা এর চেয়েও বেশি। সপ্তাহে ২ (দুই) দিন ছুটির সুবিধা। দুই মেয়াদে প্রায় ১০ বছর কোরিয়া থাকা যায়। ভাষাগত দক্ষতা ভালোভাবে অর্জন করতে পারলে নাগরিকত্ব পাওয়া যায়। দেশে ফিরে আসার সময় বড় অঙ্কের টাকা দেয়। বছরে ৩ থেক ৪ টা বোনাস পাওয়া যায়। কোরিয়া গিয়ে কাজ খুঁজতে হয়না। দেশ থেকেই কোম্পানিতে জয়েন করে যেতে হয়। থাকা খাওয়ার খরচ কোম্পানি বহন করে।

এই বিষয়ে আরো ভালোভাবে জানতে চাইলে ভিজিট করতে পারেন BOESL এর ওয়েব সাইটেঃ www.boesl.gov.bd অথবা যোগাযোগ করতে পারেন Global IT & Language Institute Ltd. (www.global.edu.bd)।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ