আজ মঙ্গলবার, ১২ই নভেম্বর, ২০১৯ ইং

জামালগঞ্জে কড়া নিরাপত্তায় ভোটগ্রহণ

  • আপডেট টাইম : জুন ১৮, ২০১৯ ২:১০ অপরাহ্ণ

উপজেলা প্রতিনিধি, জামালগঞ্জ

সুনামগঞ্জ : কঠোর নিরাপত্তার মধ্যে দিয়ে সুনামগঞ্জের জামালগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, ভাইস চেয়ারম্যান পুরুষ ও মহিলা পদে ১৭ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে ভোটগ্রহণ চলবে।

উপজেলার ৬টি ইউনিয়নের ৪৬টি কেন্দ্রের মধ্যে ২০টি অধিক গুরুত্বপূর্ণ, ১৬টি গুরুত্বপূর্ণ ও ১০টি সাধারণ কেন্দ্র হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে। অধিক গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে ৭ জন পুলিশ ও ১২ জন আনসার সদস্য আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করছে।

এছাড়া ২৬টি কেন্দ্রে পর্যাপ্ত সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী মোতায়ন করা হয়েছে। নির্বাচনি এলাকায় ৫৫৭ জন পুলিশ ও ৫ প্লাটুন বিজিবিসহ র‌্যাব সদস্যরা দায়িত্বপালন করছে। অন্যদিকে ৫ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম পরিচালনা করা হচ্ছে। ৪৬টি কেন্দ্রের আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সার্বক্ষণিক তদারকির দায়িত্ব পালন করছেন ২ জন পুলিশ সুপার, ৬ জন অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, ৩ জন সহকারী পুলিশ সুপার, ১২ জন ওসি, এসআই ৬৮ জন, ৬৯ জন এএসআই । সাদা পোষাকে ১৬টি গোয়েন্দা টিম পুরো নির্বাচনি এলাকায় নজরদারি করছে। এছাড়াও নির্বাচনি এলাকায় বিজিবি ও র‌্যাব সদস্যরা টহল দিচ্ছে।

উপজেলার ১ লাখ ১২ হাজার ৭৭২ জন ভোটার ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। ভোটগ্রহণের জন্য ৪৬ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ২৮৭ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার ও ৫৭৪ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করছেন।

জামালগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আরশেদ আলী বলেন,‘অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য সব ধরনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ভোটাররা যাতে কেন্দ্রে এসে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পারেন সে লক্ষ্যে নির্বাচন কমিশন কাজ করে যাচ্ছে।

উপজেলার বেশ কয়েকটি কেন্দ্র পরিদর্শন করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. হায়াতুন নবী বলেন,‘সবগুলো কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। কোথাও কোনও অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী কঠোরভাবে দায়িত্ব পালন করছে।’

হাজী কালাগাজী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রিসাইডিং অফিসার অমিত পন্ডিত বলেন,‘ভোটারদের উপস্থিতি ক্রমশ বাড়ছে। ভোটাররা এখন পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোটাধিকার প্রয়োগ করছেন।’

স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী রেজাউল করিম শামীম বলেন,‘এখন পর্যন্ত সুষ্ঠু পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। প্রশাসনও নিরপেক্ষ দায়িত্ব পালন করছে।’

জামালগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. সাইফুল আলম বলেন,‘ভোটাররা যাতে নির্বিঘ্নে ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট দিতে পারে সে লক্ষ্যে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী কাজ করছে।’

সহকারী রির্টানিং অফিসার ও জামালগঞ্জ উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা প্রিয়াংকা পাল বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণের জন্য সব ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এখন পর্যন্ত কোনও কেন্দ্রে থেকে কোনও ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি।’

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতীকে সাবেক উপজেলা ও ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইউসুফ আল আজাদ ও মোটরসাইকেল প্রতীকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে জেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি রেজাউল করিম শামীম এবং জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের রশীদ আহমদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

এছাড়া পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে গোলাম জিলানী আফিন্দি, আকবর হোসেন, মো. সিদ্দিকুর রহমান, শাহাব উদ্দিন, জুবায়ের আবেদীন, মো. জসীম উদ্দিন, মো. আব্দুল কদ্দুছ, মো. আব্দুল আহাদ, মো. আসাদুল আলম সিদ্দিকী, মো আব্দুল আউয়াল এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে হাফিজা আক্তার, বীণা রাণী তালুকদার,মোছা. সুহেলা আক্তার, রুনা লায়লা, চৌধুরী শারমিন রহমান ও রাবেয়া সিদ্দিকা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

উল্লেখ্য এ উপজেলায় নিরপেক্ষ নির্বাচন করা সম্ভব নয় বলে গত ১০ মার্চের নির্বাচন স্থগিত ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ