আজ শনিবার, ৪ঠা জুলাই, ২০২০ ইং

স্কুলের মাঠে বালুর স্তুপ

  • আপডেট টাইম : July 31, 2019 5:37 AM

উপজেলা প্রতিনিধি, কুলাউড়া

মৌলভীবাজার : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া উপজেলায় মনু নদী থেকে অবৈধ বালু উত্তোলন করে সেগুলো রাখা হচ্ছে স্কুলের খেলার মাঠে। এতে শিক্ষার্থীরা বঞ্চিত হচ্ছে খেলাধুলা থেকে। কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের গজভাগ আহমদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে ঘটেছে এমন ঘটনা।

স্থানীয়রা জানায়, মনু নদী থেকে মাস খানেক থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু তোলা অব্যাহত রয়েছে। এবং এই বালু তুলে স্থানীয় গজভাগ আহমদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের খেলার মাঠে স্তুপ করে রাখা হচ্ছে। এতে শিক্ষার্থীরা যেমন খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে তেমনি বিকেল বেলা স্থানীয়রাও বঞ্চিত হচ্ছেন শারীরিক বিভিন্ন কসরত থেকে।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে কয়েকজন ক্রীড়ামোদী জানান, এলাকার যুবক ও খেলোয়াড়রা মাঠে নিয়মিত প্র্যাকটিস করে। কিন্তুু মাঠে বালু থাকার কারণে আমরা এখনো বিকেল বেলা ফুটবল খেলা থেকে বঞ্চিত রয়েছে তারা।

গজভাগ আহমদ আলী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের অধ্যক্ষ মো. তাজুল ইসলাম জানান, আমরা কয়েকবার ইজারাদারদের বালু তুলে স্কুলে মাঠে রাখতে নিষেধ করেছি। কিন্তু তারা শুনছে না। তারা বার বার সড়িয়ে ফেলার প্রতিশ্রুতি দিলেও এ পর্যন্ত বালু স্কুল মাঠে স্তুপ করে রাখা অব্যাহত রয়েছে। এতে শিক্ষার্থীরা মধ্যাহ্ন বিরতির সময় খেলাধুলা থেকে বঞ্চিত হচ্ছে।

মনু নদীর ইজারাদার মো. বদরুল ইসলাম মোবাইল ফোনে জানান, নিয়ম মেনেই বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। নদীর দক্ষিণপাশের্^র মৌজা থেকে বালি উত্তোলন করে স্তুপ ও বিক্রয় করার জন্য ঠিকমত যাতায়াত ব্যবস্থা না থাকায় উত্তরপাশের্^ বিক্রয় সুবিধার জন্য বালু উত্তোলন করা হচ্ছে।

এ ব্যাপারে পৃথিমপাশা ইউনিয়ন ভূমি-সহকারী কর্মকর্তা মো. আব্দুল মোত্তাকীন বলেন, ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু উত্তোলনে বিষয়টি আমার জানা নেই। আমি অফিসে বাইরে আছি, খবর নিচ্ছি।

মৌলভীবাজার জেলা প্রশাসক নাজিয়া শিরিন জানান, বালু উত্তোলনের বিষয়টি জানার পর কুলাউড়ার ইউএনওকে নির্দেশ দিয়েছি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ