আজ শনিবার, ৩০শে মে, ২০২০ ইং

গাছ লাগানো আমাদের নৈতিক দায়িত্ব : রাগীব আলী

  • আপডেট টাইম : August 17, 2019 9:06 PM

ডেস্ক রিপোর্ট

সিলেট : মৌলভীবাজারের শেরপুর এলাকার ব্রাহ্মণ গ্রামে ৫’ শতাধিক মানুষের মাঝে বিভিন্ন প্রকার ফলদ ও বনজ গাছের চারা ও নগদ অর্থ বিতরণ করছেন দেশের বরেণ্য শিল্পপতি, অসংখ্য শিক্ষা ও সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি, মানবসেবায় নিবেদিত প্রতিষ্ঠান রাগীব-রাবেয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান দানবীর ড. রাগীব আলী।

শনিবার সকাল ৯টায় গাছের চারা বিতরণকে কেন্দ্র করে উৎসবমুখর হয়ে ওঠে পুরো ব্রাহ্মণ গ্রাম। বিশেষ করে গাছের চারা পেয়ে স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীরা ছিল উদ্বেলিত। বিভিন্ন শ্রেণি পেশার মানুষ আগ্রহ নিয়ে গাছের চারা সংগ্রহ করেছেন।

সরকারের বৃক্ষরোপণ অভিযানের আলোকে বৃক্ষচারা বণ্ঠন ও বৃক্ষরোপণ কর্মসূচির এ আয়োজন করে সিলেটের প্রথম বে-সরকারী বিশ্ববিদ্যালয় লিডিং ইউনিভার্সিটি।

অনুষ্ঠানে দেশের বরেণ্য শিল্পপতি, অসংখ্য শিক্ষা ও সমাজসেবামূলক প্রতিষ্ঠানের প্রতিষ্ঠাতা দানবীর ড. রাগীব আলী বলেন, বৃক্ষ ও পরিবেশের মধ্যে একটা নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে। একটা দেশের পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষ গুরুত্বপূর্ণ একটি উপাদান।

অপরিকল্পিতভাবে গাছ কর্তনসহ পরিবেশ বিধ্বংসী কর্মকান্ডের কারণে আমরা প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের সম্মুখীন হচ্ছি। এ ক্ষতি থেকে বাঁচতে বৃক্ষরোপণ কার্যক্রমকে জোরদার করার বিকল্প নেই বলে মন্তব্য করেন তিনি।

মানব সেবায় নিবেদিত প্রতিষ্ঠান রাগীব-রাবেয়া ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও চেয়ারম্যান দানবীর ড. রাগীব আলী আরো বলেন, আগামী প্রজন্মের জন্য বাসযোগ্য দেশ গড়তে আমাদের নৈতিক দায়িত্ব হচ্ছে বেশী করে গাছ লাগানো। কারণ, গাছপালা কার্বন ডাই-অক্সাইড গ্রহণ করে এবং অক্সিজেন ত্যাগ করেই উপকারের পরিসমাপ্তি ঘটায় না বরং, বড় বড় বৃক্ষ বজ্রপাত প্রতিরোধে কার্যকর ভূমিকা রাখে। গাছ মানুষকে সুশীতল ছায়া দেয়, ফল দেয়, ফুল দেয় এবং মরণ ব্যাধির ওষুধেরও জোগান দেয়। সেই সাথে গাছ পাহাড়ধস থেকে রক্ষা করে। গাছ আমাদের পরম বন্ধু বলেও উল্লেখ করেন তিনি। পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত থেকে বাঁচতে বেশী বেশী করে বৃক্ষরোপণ এবং গাছের পরিচর্যায় সকলকে নিবেদিত হওয়ার আহবান জানান প্রখ্যাত এ দানবীর।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, লিডিং ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার বনমালী ভৌমিক, ১নং খলিলপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অরবিন্দু পোদ্দার বাচ্চু, ছহিফাগঞ্জ এস.ডি মাদ্রাসার সুপার মাওলানা আব্দুর রউফ, ইউপি সদস্য তাহির উদ্দিন, খলিলপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি উৎপল ভৌমিক, আওয়ামী লীগ নেতা কানু লাল ভৌমিক, তনু ভৌমিক, তপু ভৌমিক, জলিল মিয়া, ব্যবসায়ী পিংকু দে, কংকন ভৌমিক, চন্দন ভৌমিক, তপু ভৌমিক, অরুণ ভৌমিক প্রমুখ।

এদিকে, শনিবার সকালে ব্রাহ্মণ গ্রামে লিডিং ইউনিভার্সিটির আয়োজনে সরকার গৃহিত জলাশয়ে মাছের পোনা অবমুক্তকরণ কর্মসূচিতে যোগ দেন দানবীর ড. রাগীব আলী। তিনি কয়েকটি পুকুরে বিভিন্ন প্রজাতির ১০ হাজার মাছের পোনা অবমুক্ত করেন।

এ উপলক্ষে আয়োজিত পৃথক অনুষ্ঠানে দানবীর ড. রাগীব আলী বলেন, মানবদেহে আমিষের ঘাটতি পূরণে মাছের কোন বিকল্প নেই। অপরিকল্পিত মৎস্য চাষ, আহরণ এবং সমন্বিত প্রচেষ্টার অভাবে দেশীয় প্রজাতির মাছ বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে। সম্মিলিত প্রচেষ্টায় দেশীয় প্রজাতির মাছের সংরক্ষণ নিশ্চিত করা প্রয়োজন বলে তিনি উল্লেখ করেন। এ ব্যাপারে সকলকে যতœশীল হওয়ার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে লিডিং ইউনিভার্সিটির ট্রেজারার বনমালী ভৌমিকসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ