আজ বুধবার, ১৯শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং

তিন লক্ষ মানুষের চিকিৎসায় তিন ডাক্তার

  • আপডেট টাইম : August 19, 2019 9:30 AM

উপজেলা প্রতিনিধি

জকিগঞ্জ : সংকটের অপর নাম যেন জকিগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স। নেই পর্যাপ্ত ডাক্তার। ৩ লক্ষ মানুষের জন্য আছেন মাত্র ৩ জন ডাক্তার। ফার্মাসিস্ট, নার্সসহ আরো অসংখ্য পদ রয়েছে শূন্য। আর এমন জনবল শূন্যতায় অন্তহীন দুর্ভোগ পোহাচ্ছেন উপজেলাবাসী।

৩১ শয্যা বিশিষ্ট স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সটি এ উপজেলার ৩ লাখ মানুষের চিকিৎসার একমাত্র ভরসাস্থল। প্রতিদিন হাসপাতালে আউটডোরে প্রায় ৩শ রোগী আসেন। ইনডোরে ৪০-৪৫ জন রোগী ভর্তি হন। উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক ও পরিবার-পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা: আব্দুল্লাহ আল মেহেদী জানান, হাসপাতালে ডাক্তারের ১৯টি পদ রয়েছে। তার মধ্যে কর্মরত আছেন মাত্র ৩ জন ডাক্তার। কোনো বিশেষজ্ঞ ডাক্তারও নেই। ৯ জন নার্সের মধ্যে কর্মরত আছেন ৭ জন।

ইনডোরে শয্যা সংকটের কারণে রোগীকে ফ্লোরে রাখা হয়। ফার্মাসিস্টের ৪ টি পদ-ই শূন্য। দাঁতের ডাক্তারের ২ টি পদ শূন্য। তৃতীয় শ্রেণীর ১০৮টি পদের মধ্যে ৩৯টি পদ শূন্য রয়েছে। চতুর্থ শ্রেণীর কর্মচারীর ১৯ টি পদের মধ্যে ৫ টি পদ শূন্য। হাসপাতালে বাবুর্চি নেই। ঝাড়ুদারের ৫ টি পদ রয়েছে। এর মধ্যে কর্মরত ২ জন।

প্রতিদিন রোগীর সঙ্গে কমপক্ষে ১ হাজার লোক আসা-যাওয়া করেন। ২ জন ঝাড়ুদারের পক্ষে এতো ময়লা আবর্জনা পরিস্কার করা সম্ভব হয়ে উঠে না। উপজেলা স্বাস্থ্য প্রশাসক তার নিজস্ব অর্থায়নে ২ জন ঝাড়ুদার নিয়োগ করেছেন। মাত্র ৩ জন ডাক্তার হাসপাতালে আগত রোগীদের চিকিৎসা দিতে হিমশিম খাচ্ছেন।

স্বাস্থ্য প্রশাসক জানান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সংলগ্ন ১৯ শয্যা বিশিষ্ট একটি ভবন নির্মাণ করা হলেও ভবনটি প্রশাসনিক অনুমোদন না পাওয়ায় চালু হয়নি।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ