আজ সোমবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২০ ইং

স্বাধীনতার প্রশ্নে কাশ্মীরে গণভোট দিতে প্রস্তুত ইমরান

  • আপডেট টাইম : January 17, 2020 9:52 AM

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরের নাগরিকরা কি পাকিস্তানের সঙ্গে থাকতে চান, নাকি স্বাধীনতা চান, সে ব্যাপারে তাদেরকেই সিদ্ধান্ত নিতে দেওয়া উচিত বলে মন্তব্য করেছেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

জার্মানভিত্তিক সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলেকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে কাশ্মীরসহ পাকিস্তানের রাজনৈতিক বিভিন্ন বিষয় নিয়ে মন্তব্য করেন ইমরান খান।

কাশ্মীরের নাগরিকদের স্বাধীনতার প্রশ্নে গণভোট দিতেও পাকিস্তান প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন ইমরান খান।

গত ৫ আগস্ট সংবিধানের ৩৭০ ধারা বাতিলের মাধ্যমে নিজেদের নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে ভারত।

এই প্রসঙ্গে ইমরান খান বলেন, ‘ভারতে এখন আরএসএস’র (রাষ্ট্রীয় স্বেচ্ছাসেবক সংঘ) হিন্দুত্ববাদী ভাবাদর্শের জয়জয়কার। আরএসএস জার্মানির নাৎসিদের দ্বারা অনুপ্রাণিত। আর নাৎসিদের জন্ম হয়েছিল সংখ্যালঘুদের প্রতি ঘৃণা থেকে। তেমনিভাবে আরএসএস মতাদর্শও মুসলমানসহ অন্যান্য সংখ্যালঘুদের প্রতি ঘৃণার ওপর দাঁড়িয়ে আছে।’ পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘এটা ভারত ও তার প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য একটি ট্র্যাজেডি যে, ভারত এখন আরএসএস দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।’

পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে মানবাধিকার পরিস্থিতি ভালো না থাকার অভিযোগ তোলা হলে ইমরান খান বিশ্বের যে কোনও দেশের নাগরিককে প্রথমে সেখানে যাওয়ার আহ্বান জানান। এরপর ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে গিয়ে দুই অঞ্চলের তুলনা করে নিজেই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

ইমরান খান বলেন, হংকংয়ে বিক্ষোভের চেয়ে কাশ্মীর ট্র্যাজেডি অনেক বড় ঘটনা হলেও বিশ্ব সংবাদমাধ্যমে তা বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে না। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, ‘দুঃখজনক হলেও সত্য যে, পশ্চিমাদের কাছে বাণিজ্যিক স্বার্থ বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ভারত একটি বড় বাজার। তাই কাশ্মিরের প্রায় ৮০ লাখ মানুষ ও ভারতে সংখ্যালঘুদের প্রতি কী ঘটছে, তা নিয়ে পশ্চিমাদের বেশি প্রতিক্রিয়াশীল হতে দেখা যায় না।’

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ