আজ রবিবার, ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ ইং

সিলেটে একযোগে ১৫৬ টি বিট পুলিশিং কার্যালয়ে  ধর্ষন ও নারী নির্যাতন প্রতিরোধে সমাবেশ

  • আপডেট টাইম : October 18, 2020 8:39 PM

নিজস্ব প্রতিবেদক ঃ সিলেট জেলার এগারটি থানায় প্রতিটি ইউনিয়ন ও পৌরসভায় এক যোগে ধর্ষন ও নারী নির্যাতন বিরোধী সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। শনিবার (১৭) অক্টোবর সকাল দশটায় জেলার এগারটি থানার ইউনিয়ন ও পৌরসভা কার্যালয়ে স্থাপিত ৮৮ টি বিট পুলিশিং কার্যালয়ে এ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে। পুলিশ সুপার থেকে শুরু করে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এবং সহকারী পুলিশ সুপারগন বিভিন্ন থানার অপেক্ষাকৃত গুরুত্বপূর্ণ সমাবেশে অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। অফিসার ইনচার্জগনের তত্ত্বাবধানে প্রতিটি বিটের দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার গন নিজ নিজ বিট পুলিশিং কার্যালয়ে ধর্ষন ও নারী নির্যাতন বিরোধী এ সমাবেশের আয়োজন করে। সংশ্লিষ্ট এলাকার জনপ্রতিনিধি,ইমাম,শিক্ষক ,স্কুল কলেজের ছাত্র ছাত্রী,নারী প্রতিনিধি সহ বিভিন্ন শ্রেনী মানুষ এ সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন। সম্প্রতি নারী নির্যাতনের ঘটনা তুলনামূলক ভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় সামাজিকভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে সবাইকে সচেতন করার উদ্দেশ্যে পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশনায় সারা দেশে ৬৯১২ টি বিট পুলিশিং কার্যালয়ে এক যোগে এ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে।

ওসমানীনগর থানাধীন গোয়ালাবাজার ইউনিয়ন বিট পুলিশিং কার্যালয়ে অনুষ্টিত ধর্ষন ও নারী নির্যাতন বিরোধী প্রতিবাদ সমাবেশে প্রধান অথিতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম। পুলিশ সুপারের বক্তব্যে তিনি নারীর প্রতি সহিংসতা ও নির্যাতন প্রতিরোধে সকল শ্রেনী পেশার মানুষ কে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। পাশাপাশি নারী নির্যাতন প্রতিরোধ এবং এরকম ঘৃন্য অপরাধের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে  ভুক্তভোগি সহ সচেতন মানুষদেরকে  নিজ নিজ বিট অফিসারদের মোবাইল নাম্বার এবং জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯’ এ তথ্য দেওয়ার জন্য সবাইকে অনুরোধ করেন।একই সাথে নারী নির্যাতনের মত পৈশাচিক ও ঘৃন্য অপরাধের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুততম সময়ের মধ্যে কঠোর আইনগত ব্যবস্থা নিতে জেলা পুলিশ আন্তরিকভাবে কাজ করছে বলে জানান তিনি।

পুলিশ সুপার মোহাম্মদ ফরিদ উদ্দিন পিপিএম এর বরাত দিয়ে জেলা পুলিশের সহকারী মিডিয়া অফিসার সাইফুল আলম জানান, নারীর প্রতি সহিংসতা ও নির্যাতন বন্ধ করতে সাধারন মানুষকে সচেতন করার লক্ষ্যে পুলিশ সদর দপ্তরের নির্দেশে সারা দেশে একযোগে ধর্ষন ও নির্যাতন বিরোধী প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছ। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেট জেলার এগারটি থানার ৮৮ টি বিটে এ সমাবেশ অনুষ্টিত হয়েছে।

এমএমপিঃ এদিকে ১৭ অক্টোবর সকাল ১০.০০ ঘটিকায় দেশব্যাপী বাংলাদেশ পুলিশের উদ্যোগে প্রতিটি বিট এলাকায় “ধর্ষণ ও নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ” সংক্রান্তে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এরই ধারাবাহিকতায় সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের ০৬ টি থানা এলাকার ৬৮ টি বিটে “ধর্ষণ ও নারীর প্রতি সহিংসতা প্রতিরোধ” সংক্রান্তে সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে সংশ্লিষ্ট বিট এলাকার দায়িত্বপ্রাপ্ত অফিসার, এসএমপি,র ঊর্ধ্বতন অফিসার, উল্লেখযোগ্য সংখ্যক নারী, স্থানীয় জনপ্রতিনিধি, গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, গণমাধ্যমকর্মীগণ ও বিভিন্ন শ্রেনী পেশার লোকজন উপস্থিত ছিলেন। সমাবেশে অংশগ্রহণকারীরা পোস্টার, লিফলেট, প্ল্যাকার্ড প্রদর্শনের মাধ্যমে জনসাধারণকে ধর্ষণ ও নারী নির্যাতনের বিরুদ্ধে এগিয়ে আসা এবং সচেতন হওয়ার আহবান জানান। প্রতিটি বিট এলাকায় উপস্থিত পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তারা বলেন দেশের জনগনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে এবং প্রতিটি ঘটনায় অপরাধীকে আইনের আওতায় আনতে বাংলাদেশ পুলিশ পেশাদারিত্বের সাথে দায়িত্ব পালন করছে। ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করতে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধন করে ধর্ষণের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদন্ড নিশ্চিত করেছেন। সমাবেশে উপস্থিত সকলেই ধর্ষণ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধে এক যোগে কাজ করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
সিলেট মহানগর পুলিশের এডিসি মিডিয়া এন্ড কমিনিউটি সার্ভিস বি, এম, আশরাফ উল্যাহ তাহের জানান মহানগর পুলিশের ৬৮ টি বিট পুলিশিং এর বিভিন্ন অংশে সিলেট মহানগর পুলিশের কমিশনার গোলাম কিবরিয়া পিপিএম সহ অন্যান্য সিনিয়র কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। সফলভাবে নাগরিকদের নিয়ে অনুষ্ঠানগুলো সম্পন্ন হয়েছে। 

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ