২২ জুন ২০২২


আফগানিস্তানে ভূমিকম্পে নিহত বেড়ে ৯৫০

শেয়ার করুন

আর্ন্তজাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানের পাকতিকা ও খোস্ত প্রদেশে মঙ্গলবার গভীর রাতে আঘাত হানা ভূমিকম্পে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ৯৫০ জনে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছেন দেশটির তালেবান সরকারের কর্মকর্তারা। আর আহতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬০০ জনে।

বুধবার তালেবান সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিষয়ক তার উপমন্ত্রী শরাফুদ্দিন মুসলিম এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, অন্তত ৯৫০ জন নিহত হয়েছে এবং আরও ৬০০ জন আহত হয়েছে।

আফগানিস্তানের দক্ষিণ-পূর্বাঞ্চলীয় প্রদেশ খোস্তের রাজধানী শহর খোস্ত থেকে আনুমানিক ৪৪ কিলোমিটার দূরে গতকাল রাতে ৬.১ মাত্রার এক শক্তিশালী ভুমিকম্প আঘাত হানে।

আফগান সরকারের মুখপাত্র বিলাল করিমি জানিয়েছেন, দুর্ভাগ্যজনকভাবে গত রাত দেড়টার দিকে পাকতিকা প্রদেশের চার জেলায় ভয়াবহ একটি ভূমিকম্প আঘাত হানে। যখন সবাই ঘুমিয়ে ছিল।

আফগানিস্তান, পাকিস্তান ও ভারতের ৫০০ কিলোমিটারেরও বেশি এলাকাজুড়ে এই ভূমিকম্প অনুভূত হয়। আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল ও পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদেও কম্পন অনুভূত হওয়ার কথা জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদর্শীরা।

তালেবানের শীর্ষ নেতা হিবাতুল্লা আখুন্দজাদা বলেছেন, ভুমিকম্পে শত শত ঘরবাড়ি ধ্বংস হয়েছে এবং মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

স্থানীয় একজন চিকিৎসক বিবিসিকে বলেছেন, এখন পর্যন্ত বেশিরভাগ হতাহতের ঘটনা ঘটেছে পাকতিকা প্রদেশের গায়ান ও বারমাল জেলায়। স্থানীয় গণমাধ্যম ইতিলাত-ই রোজ জানিয়েছে, গায়ানের পুরো একটি গ্রাম ধ্বংস হয়ে গেছে।

ভৌগলিকভাবে আফগানিস্তান একটি ভূমিকম্প প্রবণ এলাকা। দেশটি টেকটোনিকভাবে সক্রিয় অঞ্চলে অবস্থিত। চমন ফল্ট, হরি রুদ ফল্ট, সেন্ট্রাল বাদাখশান ফল্ট এবং দরভাজ ফল্ট সহ বেশ কয়েকটি ফল্ট লাইনের উপর অবস্থিত আফগানিস্তান।

গত ১০ বছরে দেশটিতে ভূমিকম্পে ৭ হাজার জনেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছে বলে জানিয়েছে, জাতিসংঘের মানবিক বিষয়ক সমন্বয়ের কার্যালয়। দেশটিতে ভূমিকম্পে বছরে গড়ে ৫৬০ জন মারা যায়।

শেয়ার করুন