জাহান্নাম থেকে মুক্তি লাভ করতে হবে
বুধবার, ২৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৭:০৪

নাজাতের দশক শুরু

জাহান্নাম থেকে মুক্তি লাভ করতে হবে

মাওলানা শাহিদ আহমদ হাতিমী

প্রকাশিত: ০১/০৪/২০২৪ ০৩:৩০:২০

জাহান্নাম থেকে মুক্তি লাভ করতে হবে


আজ ২১ রামজান। রোজা মুসলমাদের ৫টি স্তম্ভের একটি। আল্লাহর নির্দেশ পালনের উদ্দেশে নিয়তসহ সুবহে সাদিকের শুরু থেকে সূর্যাস্ত পর্যন্ত পানাহার ও স্ত্রী সহবাস থেকে বিরত থাকাই সাওম বা রোজা। গতকাল বিদায় নিয়েছে পবিত্র রামজানে মাগফিরাতের দশক। আজ থেকে মুসলিম উম্মাহ পালন করছেন নাজাতের দশক। আজ মসজিদে মসজিদে দেখা যাচ্ছে আল্লাহমুখী বান্দাহদের, এতেকাফকারীদের। যাদের কপালে এতেকাফে অবস্থান করার সুযোগ হয়েছে, সত্যিই তাঁরা ভাগ্যবান।

ইসলামের ইতিহাসে এক স্মরণীয় দিন ২১ রামজান এ দিনে ইসলামের ৪র্থ খলিফা হজরত আলি রাযিয়াল্লাহু আনহু শাহাদাত বরণ করেন। আবার এ দিনেই খেলাফত লাভ করেন তাঁরই পুত্র হজরত হাসান রাযিয়াল্লাহু আনহু। আজ থেকে ৩০ রামাজান বা নতুন চাঁদ দেখার আগ পর্যন্ত মনোযোগের সাথে সিয়াম সাধনার কাজ চালিয়ে যেতে হবে। ২১ তম রোজায় আমরা এই দোয়া করতে পারি। হে আল্লাহ! এ দিনে আমাকে তোমার সন্তুষ্টির দিকে পরিচালিত কর।

শয়তানদের আমার উপর আধিপত্য বিস্তার করতে দিওনা। জান্নাতকে আমার গন্তব্যে পরিণত কর। হে প্রার্থনাকারীদের অভাব মোচনকারী আল্লাহ। 

রামজানের ২১ তারিখ হজরত মুসা আলাইহিস সালাম জন্মগ্রহণ করেন। আল্লাহ তাআলা হজরত ঈসা আলাইহিস সালামকে আসমানে তুলে নেন। ২১ রামজান অনেক নবি-রাসুল জন্ম ও মৃত্যু হয়। ২১ রামজান মুসলিম উম্মাহর কাছে যেমনি এক হৃদয় বিদারক ঘটনা আবার অন্য দিকে ইসলামের অনন্য আনন্দের দিন। কারণ এ দিনে হজরত হাসান রাযিয়াল্লাহু আনহু খেলাফত লাভ করেছিলেন।

এতেকাফে সবচেয়ে তৃপ্তির বিষয় হচ্ছে-

জামাআতে নামায আদায় হয়। জামাআতে নামায আদায়ের ফযীলত প্রসঙ্গে হযরত আবদুল্লাহ ইবনে উমর রাযি. থেকে বর্ণিত, নবী কারীম সা. ইরশাদ করেন, জামাতের সাথে আদায়কৃত নামায একাকী নামাযের চেয়ে ২৭ গুন বেশী ফজীলতপূর্ণ। (বোখারী শরীফ হাদীস নং ৬৪৫)। 

উসমান ইবনে আফফান রাযি. থেকে বর্ণিত- প্রিয় নবী সা. ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তি এশার নামায জামাতের সাথে আদায় করল সে যেন অর্ধরাত দাঁড়িয়ে ইবাদত করল। আর যে ব্যক্তি ফজরের নামায জামাতের সাথে আদায় করল, সে যেন সারারাত নামায পড়ল। (মুসলিম শরীফ হাদীস নং ৬৫৬)।

হযরত আনাস রাযি. এর সুত্রে অন্য এক হাদিসে বর্ণিত আছে, যে ব্যক্তি আল্লাহ তাআলার সন্তুষ্টির জন্য লাগাতার ৪০ দিন ক্রমাগত তাকবীরে উলার সাথে জামাআতে নামায আদায় করবে, তার জন্য দুটি সনদ লিখে দেওয়া হবে, ১টি হল তার জাহান্নাম থেকে মুক্তির। অপরটি হল মুনাফেকির ফিরিস্তি থেকে মুক্তির। (তিরমিযী শরীফ হাদীস নং ২৪১)। 

হযরত আবু মূসা আশআরী রাযি. থেকে বর্ণিত, অপর এক হাদীসে রাসূল সা. ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তি মসজিদে যতদূর থেকে এসে অবস্থান করে, সে দূর থেকে মসজিদে আসার দরুন ততবেশী সওয়াবের অধিকারী হবে। (বোখারী শরীফ হাদীস নং ৬৫১,মুসলিম শরীফ হাদীস নং ৬৬২)।

হযরত আবু উমামা রাযি. থেকে বর্ণিত, অন্য এক হাদীসে আছে রাসূল সা. ইরশাদ করেন, যে ব্যক্তি ঘর থেকে উযু করে ফরয নামাযের উদ্দেশ্যে মসজিদ পানে রওয়ানা হল, সে ইহরাম বেধে গমনকারীর প্রাপ্ত সওয়াবের পরিমাণ সওয়াবের অধিকারী হবে। (আবু দাউদ শরীফ হাদীস নং ৫৫৮)। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে ২১ রামজানের ফজিলত ও মর্যাদায় ধন্য করুন। ইসলামের জন্য শাহাদাতকারী সাহাবায়ে কেরামদের রুহানি ফয়েজ ও বরকত দান করুন। আমিন। (চলবে...)

লেখক : জৈষ্ঠ সহ সম্পাদক, আজকের সিলেট ডটকম।

সিলেটজুড়ে


মহানগর