আজ শনিবার, ৭ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

সিলেটে ‘কৌশলী’ বিএনপি

  • আপডেট টাইম : January 4, 2019 9:55 AM

এ এস রায়হান : সিলেটে বিএনপি নেতাকর্মীরা এখন ‘কৌশলী চলাফেরা’ করছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পূর্বে থেকেই অধিকাংশ নেতাকর্মীরা আত্মগোপনে ছিলেন। এখনও তারা আত্মগোপনেই রয়েছেন। পুলিশী হয়রানি থেকে বাঁচার জন্য তারাই এই পন্থায় চলছেন বলে জানিয়েছেন বিএনপির অনেকেই। সিলেট বিএনপি নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে নতুন করে আরও ১২টি মামলা হয়েছে।

বিএনপি নেতাকর্মীদের অভিযোগ, নির্বাচনের পরেও তাদের নেতাকর্মীরা পুলিশী হয়রানির শিকার হচ্ছেন। আত্মগোপনের রয়েছেন বিএনপিসহ অঙ্গসংগঠনের নেতাকর্মীরাও। মামলা ও গ্রেপ্তার আতঙ্ক নিয়ে নির্বাচনে প্রচার কাজে থাকলেও এখনও পুরোদমেই আত্মগোপনে থাকতে হচ্ছে তাদের। নতুন পুরাতন মামলার কারণে নেতাকর্মীরা কোণঠাসা হয়ে পড়েছেন।

মর্যাদাপূর্ণ আসন সিলেটে বিএনপি মনোনীত প্রার্থী হারের পর কোনো ধরনের আন্দোলন দেখা যায়নি। বিএনপি নেতারা বলছেন, স্থানীয়ভাবে এখন কর্মসূচি দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। কেন্দ্রের দিকেই এখন তাকিয়ে আছেন তারা। কেন্দ্র থেকে আন্দোলনের নির্দেশ এলেই কর্মসূচি দিয়ে মাঠে নামবেন স্থানীয় নেতাকর্মীরা। তাই এখন পর্যন্ত কোনো আন্দোলনে নামেনি সিলেট বিএনপি।

মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি রেজাউল হাসান লোদী বলেন, আমরা নির্বাচনের শুরতেই পুলিশী বাধায় প্রচার চালাতে পারিনি। এখন পুলিশী হয়রানিতে বাসাবাড়িতে টিকাও মুশকিল। আমি সিলেটের মানুষের চার বারের নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি। কিন্তু আমার নামেও মামলা হয়েছে এর কারণে নিয়মিত অফিস করতে পারছি না। জনগণের সুবিধা নিশ্চিতে যে কাজ করার কথা সেটিও করতে পারছি না।

তিনি আরও বলেন, কেন্দ্রীয়ভাবে আমরা কর্মসূচির নির্দেশের অপেক্ষা করছি। স্থানীয়ভাবে আমাদের কোনো কর্মসূচি বা আন্দোলনের ডাক দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। তাই আমরা এখন কেন্দ্রের দিকে তাকিয়ে। পাশাপাশি পুলিশি হয়রানির একটা প্রভাব নেতাকর্মীদের মধ্যে রয়েছে।

এদিকে, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটের দিন ভোটকেন্দ্রে বাধা প্রদানের অভিযোগে নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে আরও ১২টি নতুন মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছেন মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (গণমাধ্যম) মো. জেদান আল মুসা।

তিনি বলেন, নির্বাচন পরবর্তী সময়ে আরও ১২টি মামলা হয়েছে। নির্বাচনের আগেও বেশ কয়েকটি মামলা হয়েছে। সঠিক সংখ্যা এখন বলা যাচ্ছে না। নির্বাচন পরবর্তী মামলাগুলো ভোটকেন্দ্রে বাধা প্রদানের কারণেই হয়েছে।

নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সিলেটে বিএনপি নেতাকর্মীদের কারাগারে প্রেরণের কারণে যে আতঙ্ক সৃষ্টি হয়েছে সেটি এখনও কাটেনি। অনেকের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থাকলেও সেখানে সময় না দিয়ে পুলিশী হয়রানির কারণে কৌশলী চলাচল করতে হচ্ছে এমনটি অভিযোগ বিএনপি নেতাকর্মীদের।

মহানগর বিএনপি সভাপতি নাসিম হোসাইন বলেন, নির্বাচন পরবর্তী সময়ে এখনও পুলিশী হয়রানির শিকার হচ্ছি। বিভিন্ন রকমের মামলা দিয়ে আমাদের হয়রানি করা হচ্ছে। পুলিশ থেকে বাঁচতে অধিকাংশ নেতাকর্মীই আত্মগোপনে রয়েছেন। নতুন করেও মামলা দেওয়া হচ্ছে।

সিলেট জেলা বিএনপি সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ বলেন, পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে আমাদের নেতাকর্মীরা কৌশলী চলাফেরা করছেন। নতুন করে আরও ১০ এর অধিক মামলা হয়েছে। এছাড়াও পুলিশী হয়রানি চলছেই। মাদের নেতাকর্মীরা বাড়িঘরে যেতে পারছেন না।

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ