আজ শনিবার, ৭ই ডিসেম্বর, ২০১৯ ইং

দল গোছাতে ব্যস্থ আ. লীগ-বিএনপি

  • আপডেট টাইম : May 5, 2019 9:04 AM

অতিথি প্রতিবেদক

সিলেট : দুই দলের অবস্থাই নাজুক। ক্ষমতায় থেকেও সিলেটে তেমন কোনো সাংগঠনিক তৎপরতা নেই আওয়ামী লীগের। বরং আছে নেতাদের মধ্যে বিভেদ। গত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে যা প্রকাশে রূপ নেয়। আর বিএনপির অবস্থা তো আরও নাজুক। দীর্ঘদিন ক্ষমতার বাইরে থাকা এই দলটির নেতাকর্মীরা মামলার ঘানি টানতে টানতে ক্লান্ত। সাংগঠনিক তেমন তৎপরতাই নেই।

সর্বশেষ গত সংসদ নির্বাচনে সিলেটে তৎপরতা দেখা গিয়েছিলো দুদলেরই। নির্বাচন শেষে দলীয় কার্যক্রমে ফের নেমে আসে স্থবিতরা। গত উপজেলা নির্বাচনে অংশ নেয়নি বিএনপি। বিএনপিবিহীন এই নির্বাচনে আওয়ামী লীগ ছিলো আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বি। ফলে দলের নেতাদের মধ্যে দুরত্ব আরও প্রকট হয়েছে।

এঅবস্থায় দলের এই স্থবিরতা আর বিভেদ ঘুচিয়ে সিলেটে সংগঠনকে তৎপরত করার উদ্যোগ দিয়েছে আওয়ামী লীগ ও বিএনপি- দু’লই।

আজ রোববার বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা করবে আওয়ামী লীগ। একই দিন জেলার কার্যকরী সভা ডেকেছে বিএনপি। একই দিন পৃথকভাবে দুই প্রধান রাজনৈতিক দলের সভা ঘিরে রাজনৈতিক স্থবিরতা কাটানোর তৎপরতা বলে মনে করছেন নেতা-কর্মীরা।

দল দুটির দায়িত্বশীল নেতা সূত্রে জানা গেছে, আওয়ামী লীগ সিলেট জেলা ও মহানগর শাখার বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা নগরীর রিকাবীবাজার এলাকার কবি নজরুল মিলনায়তনে আজ রোববার বেলা ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে। এতে জেলা ও মহানগর কমিটির পাশাপাশি উপজেলা, ইউনিয়ন ও মহানগরের ওয়ার্ড পর্যায়ের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকেরা উপস্থিত থাকবেন। একই দিন বিএনপির জেলা ও মহানগর কমিটির কার্যনির্বাহী পরিষদের বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

আওয়ামী লীগের একটি সূত্র জানিয়েছে, দলকে ঢেলে সাজানোর উদ্দেশ্যে সম্প্রতি দায়িত্বপ্রাপ্ত সিলেটের ‘সাংগঠনিক টিম’-এর সদস্যরা প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত থাকবেন। তাঁরা হচ্ছেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আবুল মাল আবদুল মুহিত, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য নুরুল ইসলাম নাহিদ, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন ও মিসবাহউদ্দিন সিরাজ, কেন্দ্রীয় সদস্য বদরউদ্দিন আহমদ কামরান ও রফিকুর রহমান।

বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা সফলে জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা গত বৃহস্পতিবার রাতে অনুষ্ঠিত হয়। জেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত সভায় বিভাগীয় প্রতিনিধি সভার প্রস্তুতি বিষয়ে আলোচনার পর জেলা কমিটির অধীন উপজেলা ও ইউনিয়ন এবং মহানগরের ওয়ার্ড শাখার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে বিভাগীয় প্রতিনিধি সভায় উপস্থিত থাকতে বলা হয়।

আওয়ামী লীগ নেতারা বলছেন, একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দলের নেতাদের দ্বন্দ্ব প্রকট রূপ নেয়নি। তবে সিটি করপোরেশন নির্বাচন এবং সদ্য সমাপ্ত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে দলের সাংসদ ও মনোনীত প্রার্থী থেকে তৃণমূল পর্যন্ত দ্বন্দ্ব ও কোন্দল স্পষ্ট ছিল। তাই অনেক স্থানে দলীয় প্রার্থী হেরেছেন। এ অবস্থায় দলকে ঢেলে সাজানোর জন্যই বড় পরিসরে বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা অনুষ্ঠিত হচ্ছে। নতুন কমিটি হলে দলে গতি আসবে।

আওয়ামী লীগের জেলা ও মহানগরের কয়েকজন নেতা জানান, আগামী অক্টোবরে দলের জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। এর আগেই সিলেট বিভাগে দলের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলা ফিরিয়ে আনা ও দলকে শক্তিশালী করতে নানামুখী উদ্যোগ নেওয়া হবে। এ ছাড়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে যেসব দায়িত্বশীল নেতা দলের প্রার্থীর বিরুদ্ধে কাজ করছেন, তাঁদের তালিকা প্রস্তুত করে দলের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় উপস্থাপন করবেন ‘সাংগঠনিক টিম’-এর দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতারা।

মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আসাদ উদ্দিন আহমদ বলেন, দলকে চাঙা করার উদ্দেশ্যেই এই বিভাগীয় প্রতিনিধি সভা হচ্ছে। মাঠপর্যায়ে দল কী অবস্থায় আছে, মূলত এটাই কেন্দ্রীয় নেতারা দেখবেন। দলকে আরও শক্তিশালী ও কার্যকর করতেই এ সভা।

এদিকে বিএনপি আগের যেকোনো সময়ের তুলনায় এখন দুঃসময় পার করছে। জাতীয় নির্বাচনের ধাক্কা সামলে ওঠার আগেই শুরু হয় উপজেলা পরিষদ নির্বাচন। সে নির্বাচনে দলীয়ভাবে অংশগ্রহণ না করায় তৃণমূল নেতা-কর্মীদের মধ্যে হতাশা ছড়িয়ে পড়ে। এ অবস্থায় কেন্দ্রীয় নির্দেশে সিলেটে বিএনপি দল পুনর্গঠনে উদ্যোগী হয়। এরই অংশ হিসেবে গত মাসে মৌলভীবাজার ও সুনামগঞ্জ জেলা বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষিত হয়। হবিগঞ্জে জেলা বিএনপির কমিটি বিলুপ্ত করে আহ্বায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। আর চলতি মাসের মধ্যেই দলের সিলেট জেলা ও মহানগর শাখা ‘পুনর্গঠন’ করা হবে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে। পাশাপাশি মেয়াদোত্তীর্ণ দলের অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনেরও নতুন কমিটি গঠনের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

বিএনপির কয়েকজন নেতা জানান, গত ৮ এপ্রিল বিএনপির সিলেটের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডন থেকে স্কাইপে বৈঠক করেন। বৈঠকে তারেক দলের সাংগঠনিক অবস্থার খোঁজখবরের পাশাপাশি জেলার আওতাধীন ১৭টি উপজেলা ও পৌর ইউনিটের নতুন কমিটি গঠনের ব্যাপারে মতামত ব্যক্ত করেন। ১৫ মের মধ্যে জেলা কার্যকরী কমিটির সভা ডেকে ইউনিটভুক্ত কমিটিগুলো পুনর্গঠনের প্রক্রিয়া সম্পর্কে কেন্দ্রে প্রতিবেদন পাঠানোরও তিনি নির্দেশনা দেন। ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের নির্দেশনা অনুযায়ীই নগরের সোবহানীঘাট এলাকার আগ্রা কমিউনিটি সেন্টারে কার্যনির্বাহী পরিষদের বৈঠক হচ্ছে।

জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলী আহমদ বলেন, ‘কর্মকৌশল ঠিক করতে আজ রোববার বৈঠক হবে। এরপর দল গোছানোর কাজ শুরু হবে। আমরা নতুনভাবে দলকে সাজিয়ে রাজপথে নামতে চাই।’

Print Friendly, PDF & Email

নিউজটি শেয়ার করুন..

এই সম্পর্কিত আরও নিউজ